অটলজিকে নিয়ে নোরাংমো করা হলে দল ব্যবস্থা নেবে: তৃণমূল

শেখর দুবে, কলকাতা: বৃহস্পতিবার বিকেলে না ফেরার দেশে পাড়ি দিয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী অটলবিহারী বাজপেয়ী৷ বৃহস্পতিবার তাঁকে দেখতে দুপুরেই দিল্লি এইমসে পৌঁছেছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ অটলজির প্রয়ানে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্য সরকার অর্ধদিবস ছুটিও ঘোষণা করে বাতিল করা হয়েছিল বেশ কিছু অনুষ্ঠানও৷

কিন্তু এসবের পাশাপাশি সোশ্যাল মিডিয়াতে নিজেদের তৃণমূল সমর্থক দাবি করে কয়েকজন প্রয়াত প্রধানমন্ত্রীকে নোংরা ভাষায় আক্রমণ করতে থাকেন৷ এ বিষয়ে তৃণমূলের রাজ্য যুব সম্পাদক সায়নদেব চট্টোপাধ্যায় সোজাসুজি বলেন, ‘‘অটলজি একজন মহান নেতা ছিলেন৷ আমাদের নেত্রীর সঙ্গে তাঁর ভালো সম্পর্ক ছিল৷ তৃণমূলের নামে তাঁকে নিয়ে কোনও নোরাংমো হলে তা বরদাস্ত করা হবে না৷’’

শুক্রবার শেষকৃত্য সম্পন্ন হয় বাজপেয়ীজির৷ প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রীর শেষ যাত্রায় নরেন্দ্র মোদী ছাড়াও দলীয় এবং বিরোধী দলের নেতারাও পা মেলান৷ স্মৃতিস্থলে অটলজিকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে উপস্থিত ছিলেন দেশ বিদেশের রাজনৈতিক ব্যাক্তিত্বরা৷ স্মৃতিস্থলে উপস্থিত ছিলেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী মনমোহন সিং এবং কংগ্রেস সভাপতি রাহুল গান্ধিরাও৷

- Advertisement -

ফেসবুকে নিজেদের তৃণমূলে বলে দাবি করা বেশ কয়েকজন অটলজিকে নিয়ে নানা রকমের কুরুচিকর মন্তব্য করেন, যাদের নিয়ে অসন্তুষ্ট ক্ষোদ তৃণমূল শিবির৷ যুব তৃণমূলের রাজ্য সম্পাদক সায়নদেবকে এই নিয়ে প্রশ্ন করা হলে তিনি Kolkata24x7-কে বলেন, ‘‘মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় কী বলছেন সেটাই আমাদের পার্টির শেষ কথা৷ আমাদের সর্বোচ্চ নেত্রী পরিষ্কার বলেছেন অটলজির সরকার এই সরকারের মধ্যে পার্থক্য রয়েছে৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়, অভিষেক বন্দ্যোপাধ্যায়ের সহ আমাদের দলের প্রত্যেকে অটলজির প্রয়ানে শোকাহত৷ এরপর যদি কেউ নিজেকে তৃণমূল বলে কুরুচিকর মন্তব্য করে এবং সে যদি পার্টির স্বীকৃত সদস্য হয় তাহলে দল তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে৷’

এরপর প্রয়াত প্রধানমন্ত্রীর সময়কার সরকারের কথা উল্লেখ করে সায়ন দেব বলেন, ‘‘ এ বিষয়ে কোনও সন্দেহ নেই অটলজি একজন লেজেন্ড৷ ভারতীয় রাজনীতির একজন মহীরূহ৷ উনি প্রধানমন্ত্রী থাকাকালীন গুজরাট দাঙ্গার প্রসঙ্গে বলেছিলেন, রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রীদের রাজধর্ম পালন করা উচিৎ ৷ তাঁর মৃত্যুতে গোটা দেশের মতই তৃণমূল কংগ্রেসও শোকাহত৷’’

Advertisement ---
-----