পারথ: তাজা সবুচ পিচে সকালের আদ্রতা কাজে লাগাতে ব্যর্থ ভারতীয় পেসাররা৷ তবে দিনের প্রথম সেশনের ব্যর্থতা দ্বিতীয় সেশনেই কাটিয়ে ওঠার লক্ষণ দেখাল টিম ইন্ডিয়া৷ মধ্যাহ্ন ভোজের বিরতিতে অস্ট্রেলিয়া বিনা উইকেটে ৬৬ রান তুলেছিল৷ লাঞ্চের পর অস্ট্রেলিয়ার তিনটি উইকেট তুলে নিয়ে ম্যাচে ফিরল ভারত৷ আপাতত প্রথম দিনের চায়ের বিরতিতে অস্ট্রেলিয়া তাদের প্রথম ইনিংসে ৩ উইকেট হারিয়ে ১৪৫ রান তুলেছে৷

আরও পড়ুন: পারথের সবুজ পিচেও প্রথম সেশনে উইকেটহীন ভারত

সাধারণত পার্থের বাইশগজ গতি ও বাউন্সের ডালি সাজিয়ে অপেক্ষা করে পেসারদের জন্য৷ ওয়াকার নতুন অপটাস স্টেডিয়ামের পিচও সেরকমই আচরণ করবে বলে মনে করা হচ্ছিল৷ পিচে ঘাস রয়েছে পর্যাপ্ত৷ সবুজ পিচ দেখে বাড়তি উদ্দীপ্ত ভারতীয় টিম ম্যানেজমেন্ট চারজন বিশেষজ্ঞ পেসার নিয়ে মাঠে নেমে পড়ে৷ প্রথম একাদশে স্পিনার রাখার প্রয়োজন মনে করেনি বিরাট কোহলিরা৷ তবে টিম ইন্ডিয়ার এমন সিদ্ধান্ত ঠিক কতটা পিচ ও পরিস্থিতি অনুযায়ী যুক্তিযুক্ত আর কতটা বাড়তি উত্তেজনার বশে নেওয়া তা নিয়ে সংশয় তৈরি হতে বিশেষ সময় লাগেনি৷

আরও পড়ুন: অপটাস স্টেডিয়ামের গ্রিন টপে বোলিং করছে ভারত

পেসারদের জন্য অল্প-বিস্তর সাহায্য থাকলেও পারথের বাইশগজ যে ব্যাটসম্যানদের জন্য বিভীষিকা নয়, সেটা বুঝতে অসুবিধা হয়নি অজি টিম ম্যানেজমেন্টের৷ তাই অপরিবর্তিত দল নিয়ে খেলতে নামা অস্ট্রেলিয়া টসে জিতে প্রথমে ব্যাটিং করার সিদ্ধান্ত নিতে বিন্দুমাত্র ভয় পায়নি৷

অজি দলনায়ক টিম পেইনের সিদ্ধান্ত যে নেহাৎ অমূলক নয়, সেটা প্রমাণিত হয়ে যায় দিনের প্রথম সেশনেই৷ চার পেসারের ভারতীয় বোলিং লাইনআপ পারথের তাজা পিচে প্রথম দিনের প্রথম সেশনে উইকেট তুলতে ব্যর্থ৷ দুই অজি ওপেনার মার্কাস হ্যারিস ও অ্যারন ফিঞ্চ ভারতীয় বোলারদের অনায়াসে সামলে দলের জন্য শক্ত ভিত গড়ে দেন৷ প্রথম দিনের লাঞ্চে অস্ট্রেলিয়া বিনা উইকেটে ৬৬ রান তুলে ফেলে৷

আরও পড়ুন: গ্রিন টপ দেখে আরও উজ্জীবিত বিরাট

মধ্যাহ্নভোজের বিরতিতে ফিঞ্চ ২৮ ও হ্যারিস ৩৬ রানে ব্যাট করছিলেন৷ পরে ব্যক্তিগত হাফসেঞ্চুরি পূর্ণ করেন দু’ই ওপেনারই৷ কেরিয়ারের দ্বিতীয় টেস্ট খেলতে নামা হ্যারিস ৯টি বাউন্ডারির সাহায্যে ৯০ বলে অর্ধশতরান করেন৷ ফিঞ্চ ৬টি বাউন্ডারির সাহায্যে ১০৩ বলে ৫০ রান করেন৷

ওপেনিং জুটিতে একশো রানের গণ্ডি পার করে যখন ম্যাচে জাঁকিয়ে বসতে শুরু করেছে অস্ট্রেলিয়া, ঠিক তখনই ভারতীয় বোলারারা পালটা আঘাত হানে অজি শিবিরে৷ হাফসেঞ্চুরির গণ্ডি ছোঁয়ার পরেই অ্যারন ফিঞ্চকে এলবিডব্লুর ফাঁদে জড়িয়ে সাজঘরে ফেরত পাঠান বুমরাহ৷ উসমান খোওয়াজা (৫) উমেশ যাদবের লাফিয়ে ওঠা বলে কাট করতে গিয়ে ঋষভের দস্তানায় ধরা পড়েন৷ ৭০ রানের অনবদ্য ইনিংস খেলা হ্যারিস ভারতের পার্টটাইম স্পিনার হনুমা বিহারীকে উইকেট দিয়ে ক্রিজ ছাড়েন৷ চায়ের বিরতিতে শন মার্শ ৮ ও পিটার হ্যান্ডসকম্ব ৪ রানে ব্যাট করছিলেন৷