পার্থ: ওয়াকায় অ্যাশেজ সিরিজ জয়ের গন্ধ পাচ্ছে অস্ট্রেলিয়া৷ চতুর্থ দিনের খেলা শেষ৷ ২৫৯ রানে পিছিয়ে থেকে দ্বিতীয় ইনিংসে ব্যাট করতে নামা ইংল্যান্ড ৪ উইকেট হারিয়ে ১৩২ রান তুলেছে৷ প্রথম ইনিংসের নিরিখে অস্ট্রেলিয়ার থেকে এখনও ১২৭ রানে পিছিয়ে রয়েছেন রুটরা৷ হাতে রয়েছে মাত্র ৬ উইকেট৷ সুতরাং ইনিংস হার বাঁচানোর প্রাথমিক লক্ষ্যে পৌঁছনো অসম্ভব না হলেও সারা দিন ক্রিজে কাটিয়ে ম্যাচ বাঁচানো কঠিন ইংল্যান্ডের পক্ষে৷

আরও পড়ুন: ট্র্যাফিক জ্যামে বিদর্ভ, ইডেনে ম্যাচ শুরু হল দেরিতে

স্টিভ স্মিথের দুরন্ত দ্বিশতরান (২৩৯) ও মিচেল মার্শের অনবদ্য ১৮১ রানের সুবাদে অস্ট্রেলিয়া তাদের প্রথম ইনিংস ডিক্লেয়ার করে ৯ উইকেটে ৬৬২ রানে৷ ঘরের মাঠে অজিদের এটি তৃতীয় সর্বোচ্চ টেস্ট ইনিংস৷ নিজেদের ডেরায় অস্ট্রেলিয়ার সর্বোচ্চ অ্যাশেজ ইনিংস এটিই৷

আরও পড়ুন: সচিনকে টপকে নজির স্মিথের

ইতিমধ্যেই সিরিজে ২-০ পিছিয়ে থাকা ইংল্যান্ড তাকিয়ে রয়েছে ডেভিড মালান ও জনি বেয়ারস্টো জুটির দিকে৷ প্রথম ইনিংসে শতরান করা দুই ব্রিটিশ তারকা ক্রিজে অপরাজিত রয়েছেন৷ চোয়াল চাপা লড়াইয়ে মালান-বেয়ারস্টো শেষদিনে ইংল্যান্ডকে উদ্ধার করতে না পারলে পার্থেই সিরিজ নিজেদের দখলে নেবে অস্ট্রেলিয়া৷ তখন বাকি দু’টি টেস্ট নিছক নিয়ম রক্ষার হয়ে দাঁড়াবে৷

আরও পড়ুন: গ্যারি সোবার্সের ৫০ বছর পুরোনো রেকর্ডে থাবা স্মিথের

ইংল্যান্ডের হয়ে ব্যাট হাতে এদিনও ব্যর্থ হন অ্যালেস্টার কুক৷ তিনি ১৪ রান করে আউট হয়েছেন৷ শেষ দশটি ইনিংসে কুক একবারও হাফসেঞ্চুরির গণ্ডি টপকাতে পারেননি৷ তার সাম্প্রিতক ব্যক্তিগত ইনিংসগুলি যথাক্রমে ১৪, ৭, ১৬, ৩৭, ৭, ২, ১৭, ১০, ২৩, ১১ রানের৷

আরও পড়ুন: ওয়াকায় কেরিয়ারের প্রথম টেস্ট সেঞ্চুরি মিচেলের

ইংল্যান্ড শিবিরকে অবশ্য স্বান্তনা দিতে পারে ব্রড-অ্যান্ডারসন জুটির নতুন রেকর্ড৷ জুটিতে একশোতম ম্যাচে দু’জনে ৭৬৩ টি উইকেট নিয়েছেন৷ এই নিরিখে তাঁরা ভেঙে দিয়েছেন কিংবদন্তি ক্যারিবিয়ান জুটি অ্যাম্ব্রোজ-ওয়ালশের ৯৬ ম্যাচে ৭৬২ উইকেট নেওয়ার রেকর্ড৷ পেসজুটি হিসাবে ব্রড-অ্যান্ডারসনই এখন টেস্টে সব থেকে সফল৷

----
--