রিভিউ: সুপারহিরোদের পাওয়ার পাঞ্চ অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার

নিউজ ডেস্ক:  পরিচালক জো-রুসো ও অ্যান্থনি রুসোর চাপ ছিল মার্ভেলের সুপারহিরোদের স্ক্রিন প্রেজেন্স নিয়ে৷ ২.৩০ ঘন্টার এই সিনেমায় থর, হাল্ক, আয়রন ম্যান, ব্ল্যাক উইডো, স্পাইডার ম্যান, ক্যাপ্টেন আমেরিকাদের ফ্যানদের আদৌ মন ভরাতে পারবে তো?

শুরু থেকেই একটা বিতর্কের তৈরি হয়েছিল, পরিচালকদ্বয় পারবেন তো মার্ভেল দুনিয়াকে ২.৩০ ঘন্টার মধ্যে হাজির করতে৷ অবশেষে সেই অসম্ভবকে সম্ভব করলেন দুই পরিচালক৷

বহু অপেক্ষার পর অবশেষে সেইদিন এসে হাজির। মুক্তি পেল ‘অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার৷’ ছবিতে ভিলেন থ্যানোসের হাত থেকে বিশ্বকে উদ্ধার করাই ছিল অ্যাভেঞ্জার্সদের কাজ৷ তবে এই রুদ্ধশ্বাস গল্পের পরিণতি কি হবে তা জানার উন্মাদনা কিন্তু কম ছিল না সিনেপ্রেমীদের৷

- Advertisement -

আরও পড়ুন: সানির ভিডিও দেখলেই স্বপ্ন হবে সত্যি

টানটান চিত্রনাট্য শেষ অবধি দর্শকদের বসিয়ে রাখতে বাধ্য করেছে সিনেমা হলে৷ যার জন্য বিশেষভাবে ধন্যবাদ জানানো উচিত ক্রিস্টোফাস মার্কস এবং স্টিফেন ম্যাকফ্লিকে৷

ছবিতে অভিনেতাদের সম্পর্কে আলাদাভাবে না বলাই ভালো৷ কারণ প্রত্যেকটা অভিনেতার অভিনয় এর আগেও প্রশংসিত হয়েছিল ফলে অভিনয়ের দিক থেকে যে বিশেষ খামতি থাকবে না তা সকলেরই জানা৷ তবে থ্যানোস চরিত্রে জস ব্রোলিনের অভিনয় অপছন্দ লাগলেও সিনেমার শেষে তাঁর অভিনয়ই কিন্তু মাথায় থাকবে আপনার৷

আরও পড়ুন: OMG! ঘায়েল জিৎ, কিন্তু কীভাবে?

কোন সুপারহিরোর ফ্যানদেরই নিরাশ করেননি জো-রুসো এবং অ্যান্থনি রুসো৷ তবে ক্লাইম্যাক্স কি হবে? আদৌ কি বেঁচে থাকবেন অ্যাভেঞ্জার্সরা তা জানতে হলে গিয়ে দেখতে হবে সিনেমাটি।

সিনেমার নাম: অ্যাভেঞ্জার্স: ইনফিনিটি ওয়ার

পরিচালক: জো-রুসো ও অ্যান্থনি রুসোছবির

অভিনয়ে: রবার্ট ডাউনি জুনিয়র, ক্রিশ ইভান্স, ক্রিশ হেমসওয়র্থ, ক্রিশ প্যাট, স্কার্লেট জনসন, বেনেডিক্ট কিউমবারব্যাচ, জশ ব্রোলিন, মার্ক রাফেলো, টম হল্যান্ড ও অন্যান্য

Advertisement ---
---
-----