ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি: খুব শীঘ্রই জোয়ার আসতে চলেছে ভারতের বীমা শিল্পে। সৌজন্যে মোদী সরকারের আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প। এমনই তথ্য উঠে এসেছে বণিকসভা অ্যাসোচেমের করা সমীক্ষায়।

সমাজের বড় অংশের মানুষকে স্বাস্থ্য বীমার আওতায় আনতে কেন্দ্রীয় সরকার ঘোষণা করেছে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প। আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে ১০ কোটি গরিব পরিবারকে স্বাস্থ্য বীমার আওতায় আনতে চায় কেন্দ্র। প্রতিটি পরিবারকে সর্বাধিক পাঁচ লক্ষ টাকা পর্যন্ত বীমার সুযোগ দেওয়া হবে এক্ষেত্রে।

অ্যাসোচেমের দাবি, আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্প বাস্তবায়িত হলে বিমা ক্ষেত্রেই শুধু সুদিন আসবে এমন নয়। বিপুল হারে বাড়ছে কর্মসংস্থানের সুযোগ। হাসপাতালগুলিও তাদের ব্যবসা অনেকটাই বাড়াতে পারবে বলে মনে করা হচ্ছে।

আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পে এখনও পর্যন্ত ভারত সরকার ১২ হাজার কোটি টাকার অনুমোদন দিয়েছে। প্রকল্পটি কতটা ফলপ্রসূ হতে পারে সেই বিষয়ে সমীক্ষা করিয়েছিল অ্যাসোচেম। প্রসিদ্ধ মার্কেট রিসার্চ সংস্থার করা সমীক্ষায় জানা গিয়েছে যে ভারতের বীমা শিল্পে যুগান্ত আসতে চলেছে। আগামী দুই বছরের মধ্যে বীমার বাজারের ব্যবসার অংক পৌঁছে যাবে ২৮ হাজার কোটি মার্কিন ডলারে। ভারতীয় মুদ্রায় যার পরিমাণ ১৯ লক্ষ ৬০ হাজার কোটি টাকা। যা সম্ভব হবে আয়ুষ্মান ভারত প্রকল্পের দৌলতেই।

২০১৭ সাল পর্যন্ত দেশের বিভিন্ন প্রান্তে সংস্থাটি সমীক্ষা করে। সেই সমীক্ষায় উঠে এসেছে ২০০১ সাল থেকে পরবর্তী ১৬ বছরে দেশে বীমার আওতায় এক শতাংশ মানুষও আসেনি। বেসরকারি সংস্থার হাতে বিমার দায়িত্ব ছাড়লেও আহামরি কিছুই হয়নি। কিন্তু সেই খরা খুব দ্রুত কাটতে চলেছে বলে মনে করছে অ্যাসোচেম।

--
----
--