‘স্বাধীন দেশে স্বাধীন আমরা’: অশোক রাও কবি

নয়াদিল্লি:  অবশেষে ‘স্বাধীন দেশে স্বাধীন আমরা’। দীর্ঘ দিনের লড়াই শেষে বৈধতা পেল সমকামিতা। বাতিল হল ভারতীয় দন্ডবিধি ৩৭৭। সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের সাংবিধানিক বেঞ্চ জানিয়ে দিল সমকামিতার অপরাধ নয়।

ভারতীয় সাংবাদিক এবং এলজিবিটি আন্দোলনের অন্যতম প্রাণপুরুষ অশোক রাও কবি এদিন সুপ্রিম কোর্টের রায়দানের পরই মন্তব্য করলেন, ‘এবার স্বাধীন দেশে স্বাধীন আমরা। অবশেষে আমরা বিচার পেলাম’।

লড়াইটা শুরু করেছিলেন বেশ কয়েক দশক আগে। অশোক রাও কবিই প্রথম যিনি সর্বসমক্ষে প্রথমবার ‘সমকামী’ ও ‘গে’ দের অধিকার নিয়ে গর্জে ওঠেন।

- Advertisement -

১৯৮৬ সালে ‘স্যাভি ম্যাগাজিন’কে দেওয়া একটি সাক্ষাতকারে শুধু অশোক রাও কবি’ই নন তাঁর মা শোভা রাও কবি’ও এই বিষয়ে কথা বলেন। সেবারই প্রথম একজন মা তার ছেলের সমকামী আন্দোলনকে সর্বসমক্ষে সমর্থন করেন। দেশ তাদের হাত ধরেই প্রথমবার প্রাপ্তবয়স্ক হওয়ার স্বপ্ন দেখেছিল।

অশোক রাও কবি ‘হমসফর ট্রাস্ট’ নামে একটি সংগঠন গড়ে তোলেন। ‘পিঙ্ক ম্যাগাজিন’ অশোক রাও কবিকে দেশের ‘সমকামী’ ও ‘গে’ আন্দোলনের সাতজন সবচেয়ে বেশী প্রভাবশালী মানুষের মধ্যে একজন হিসেবে চিহ্নিত করে।

প্রসঙ্গত, ভারতীয় দন্ডবিধি ৩৭৭ অনুযায়ী সমকামিতা অপরাধ এবং এর জন্য যাবজ্জীবন বা দশ বছরের জেল পর্যন্ত হতে পারে।আজ সেই ধারাকে অবৈধ বলে ঘোষণা করল দেশের সর্বোচ্চ আদালত। এই রায়ে স্বাধীন ভাবে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন ওরা।  মুক্ত আকাশে পাখির যেভাবে ইচ্ছে সেভাবেই উড়তে পারে। কারন আকাশ সবার।

Advertisement ---
-----