সিসরা: দেরায় ধর্ষক বাবা গুরমিত রাম রহিমের জীবন যাপন ছিল রাজকীয়। এর প্রমাণ মিলেছে অনেক আগেই। এবার সামনে এল আরও চাঞ্চল্যকর তথ্য। জলের নিচে বিলাসবহুল যৌন গুহা তৈরি করতে চেয়েছিলেন বাবা রাম রহিম। কাজ শুরু হলেও আপাতত তা স্থগিত রয়েছে।

ধর্ষণ করে খুন: রাম রহিমের খোঁজ মিলল বীরভূমে

Advertisement

নিজের শিষ্যাকে ধর্ষণ করার অপরাধে বর্তমানে জেলে বন্দী বাবা রাম রহিম। তাকে ২০ বছরের সাজা শুনিয়েছে আদালত। এই ধর্ষক বাবার জেল যাত্রা নিয়ে উত্তপ্ত হয়ে উঠেছিল হরিয়ানা রাজ্যের বিস্তীর্ণ অংশ। প্রশাসনের নিয়ন্ত্রণের বাইরে চলে যায় আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি। মৃত্যু হয় বেশ কয়েকজনের। যদিও শেষ মুহূর্তে নিজের অপরাধ স্বীকার করে নিয়েছিল বাবা রাম রহিম।

জীবিত নেতাজিকে ফিরিয়ে আনতে চেয়েছিল রাম রহিম

৭০০ একরের জায়গার ক্যাম্পাসে ছিল বাবা গুরমিত রাম রহিমের বিশাল ডেরা। বিলাসবহুল রিসর্টে আইফেল টাওয়ার এবং তাজমহলের ছোট মডেল, ডিজনি ল্যান্ড এবং স্পোর্টস কমপ্লেক্স রয়েছে। ছোট থিয়েটারে দেখানো হয় বাবা রাম রহিমে অভিনীত বিভিন্ন ছবি। এমএসজি ফুড নামের খাবারের দোকান, সেভেন স্টার স্পা, এবং মহিলাদের জিম ও সুইমিং পুল রয়েছে বাবার আস্তানায়।

সুইমিং পুলের কাছেই নজর কাড়ছে একটি গুহা। যেটি জলের নিচে অবস্থিত। মূলত বিদেশীদের জন্য নির্মাণ করা হচ্ছিল ওই গুহা। যৌনতার নয়া স্বাদ উপভোগ করতেই ওই গুহা প্রস্তুত করা হচ্ছিল বলে মনে করা হচ্ছে। বাবার গ্রেফতারের পর থমকে গিয়েছে সেই গুহা নির্মাণের কাজ। এই মুহূর্তে পরে রয়েছে শুধু ধ্বংসাবশেষ।

বাবা গুরমিত রাম রহিমের ক্রিয়াকলাপের বিষয়ে এখনও বিস্তারিত তথ্য জানতে পারেনি হরিয়ানা পুলিশ। সেই সম্পর্কে খোঁজখবর করতে চলছে তদন্ত। সমগ্র এলাকায় মোতায়েন করা হয়েছে বিশাল পুলিশ বাহিনী।

----
--