নয়াদিল্লি: ‘বাবরি মসজিদ ধ্বংস’ মামলার নিষ্পত্তি নিয়ে চিন্তায় সুপ্রিম কোর্ট৷ ২০১৯ সালের এপ্রিল মাসের মধ্যে মামলা নিষ্পত্তির সুপ্রিম নির্দেশ৷ সেই প্রক্রিয়াকীভাবে,কতদূর এগোচ্ছে? লখনউ সেশন কোর্টকে জানতে চেয়ে প্রশ্ন সুপ্রিম কোর্টের৷ বাবরি ধ্বংসে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা, যেখানে নাম রয়েছে বিজেপির বরিষ্ঠ নেতা লালকৃষ্ণ আদবানি, মুরলী মনোহর যোশী ও উমা ভারতীর৷ সেই মামলার নিষ্পত্তি নির্দেশিত ডেডলাইনে হবে কি না, তা লখনউ আদালতের কাছে জানতে চাইল সু্প্রিম কোর্ট৷

‘বাবরি মসজিদ ধ্বংস’ মামলার রেকর্ড বলছে-

Advertisement

– ২০১৭ সালের ৩০ মে- এলাহাবাদ হাইকোর্টে বাবরি মামলা ওঠে৷ মসজিদ ধ্বংসে অভিযুক্ত ছিলেন এল কে আদবানি,মুরলি মনোহর যোশী, উমা ভারতী সহ মোট ১২ জন৷

– ওই বছরই তিন বরিষ্ঠ বিজেপি নেতা তাদের ‘নির্দোষ’ দাবি করেন৷ মামলা থেকে মুক্ত হওয়ার আর্জি জানিয়ে আদালতকে এই মর্মে আবেদন করেন৷ যা খারিজ করে আদালত৷

-পরবর্তীতে, ৫০ হাজার টাকার ব্যক্তিগত বন্ডে জামিন পান তিন নেতা

-২০১৭ সালের ১৯ এপ্রিল, ‘বাবরি মসজিদ ধ্বংস’নিয়ে বিজেপি নেতাদের বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র হচ্ছে বলে সুপ্রিম কোর্টে ফের মামলা দায়ের হয়৷ শুনানিতে শীর্ষ আদালত

মামলা নিষ্পত্তির দায়িত্ব লখনউয়ের বিশেষ আদালতকে দেয়৷ ২ বছরের মধ্যে এই মামলার নিষ্পত্তির নির্দেশ দেয় শীর্ষ আদালত৷২০১৯ সালের এপ্রিল মাস বাবরি মামলার নিষ্পত্তির ডেডলাইন৷ মামলার দায়িত্বে আর এফ নরিমান ও ইন্দু মানহোত্রার বিশেষ বেঞ্চ৷ ট্রায়ালের পর রায়দান সবটাই ২০১৯ এর এপ্রিলের মধ্যেই করার নির্দেশ৷

১৯৯২ সালের ডিসেম্বরে বাবরি মসজিদ ধ্বংস ও পরবর্তী রক্তাক্ত অশান্তি দেশের রাজনৈতিক পটভূমিকাই প্রশ্নের মুখে এনেছিল৷ অভিযোগ, মসজিদ ধ্বংসে সরাসরি হাত ছিল প্রথম সারির বিজেপি নেতৃত্বের৷

----
--