দেবযানী সরকার, কলকাতা: তিনি ক্রিকেট পরিবারে মেয়ে৷ তাঁর বাবা জগমোহন ডালমিয়া দীর্ঘদিন ভারতীয় ক্রিকেটকে নিয়ন্ত্রণ করেছেন৷ সেই সূত্রে দেশের বহু ক্রিকেটারকে সামনে থেকে দেখেছেন তিনি৷ গল্পও করেছেন৷ খুব কাছ থেকে দেখা প্রাক্তন ক্রিকেটার তথা পাকিস্তানের ভাবী প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানকে শুভেচ্ছা জানালেন বৈশালী ডালমিয়া৷

Advertisement

কয়েকদিনের মধ্যেই পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নেবেন ইমরান খান৷ বৈশালীর কথায়, “ইমরান বাবার(জগমোহন ডালমিয়া)কাছে আমাদের বাড়িতে অনেকবার এসেছেন৷ আমার সঙ্গে কথাও হয়েছে৷ আমাদের পরিবারের সঙ্গে ওর খুব ভাল সম্পর্ক ছিল৷ পাকিস্তানে গিয়ে বিশ্বকাপে আমি ওর খেলা দেখেছিলাম৷ সত্যি কথা বলতে কী ইমরান যখন মাঠে থাকত তখন কারোর দিকে চোখ যেত না৷পাকিস্তান দলের একসময় খুব খারাপ অবস্থা হয়েছিল৷ সেখান থেকে তিনি দলকে ভাল জায়গায় এনেছেন ইমরান৷”

আরও পড়ুন- মোদী জামানার সবথেকে বড় দূর্নীতি ফাঁস করলেন বাংলার গেরুয়া নেতা

আমি যখন ভোটে দাঁড়িয়েছিলাম সেবছর (এপ্রিল, ২০১৬) সিএবিতে অমিতাভ বচ্চন, ইমরান খান এসেছিলেন৷ তখন জগমোহন ডালমিয়ার মেয়ে হিসেবে মমতাদি(মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) আমার সঙ্গে ইমরানের পরিচয় করাতে গিয়েছিলেন৷ তখন ইমরান বলেছিলেন, “ওকে আমি খুব ভাল করে চিনি৷ ও রাজনীতিতে এসেছে শুনে আমি খুশি হলাম৷” বৈশালী বলেন, “তখনই ইমরান আমাকে শুভেচ্ছা জানিয়েছিলেন৷”

বৈশালীর কথায়, “ইমরান প্রধানমন্ত্রী হলে পাকস্তানে একটা বড় পরিবর্তন আসবে৷ সবচেয়ে বড় কোয়ালিটি হল ওর লিডারশিপ৷ ওর মধ্যে বোল্ড অ্যাটিটিউড রয়েছে৷ স্পোর্টসম্যান স্পিরিট নিয়েই দেশকে এগিয়ে নিয়ে যাবেন বলে আশা করছি৷অনেকবার এদেশে খেলতে এসেছেন ইমরান৷ ভারতকে উনি ভাল চেনেন৷ আমি একটা জিনিসই চাইব উনি প্রধানমন্ত্রী হলে যাতে দু-দেশের সম্পর্ক ভালো হয়৷ সীমান্তে গোলা-গুলি বন্ধ হয়৷ আবার যেন আগের মতো ভারত-পাকিস্তান একে অপরের দেশে গিয়ে খেলতে পারে৷”

বিধায়ক বৈশালী ডালমিয়া৷ সঙ্গে টিএমসিপি সভানেত্রী জয়া দত্ত
----
--