হাসিনাকে ফাঁকে মাঠে খেলতে দেবে না বিএনপি

ঢাকা: আসন্ন জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশের প্রধান বিরোধী রাজনৈতিক দল বিএনপি কি ভোটে অংশ নিচ্ছে ? নাকি আগের বারের মতোই তারা বয়কট করবে ? এমনই প্রশ্ন ঘুরছে৷ এদিকে ইদ উল আজহা উৎসবের মাঝেই বিশেষ সাংবাদিক সম্মেলনে বিএনপি জানিয়ে দিল-সরকারকে একতরফা নির্বাচন করতে দেওয়া হবে না। শূন্য মাঠে আর খেলতে দেওয়াও হবে না।

ঢাকার নয়াপল্টনে দলীয় কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির জ্যেষ্ঠ যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী জানান, সরকার ভোটারদের অধিকার কেড়ে নিয়েছে। এই সরকারের অধীনে একটি সুষ্ঠু নির্বাচন হবে,এমনটা এখন আর কেউই ভাবেন না। দশম জাতীয় সংসদের মতো সরকার এবারও একতরফা নির্বাচনের দিকেই যাচ্ছে।

রিজভী জানিয়েছেন, বিএনপির নেত্রী তথা প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী খালেদা জিয়া এবং ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে বিপর্যস্ত করার চেষ্টা করছে আওয়ামী লীগ৷ ইদের দিনেও নেত্রীর সঙ্গে, দলের সিনিয়র নেতাদের দেখা করতে দেওয়া হয়নি। অনেক দেরিতে, প্রায় আড়াই ঘণ্টা কারাফটকের বাইরে আত্মীয়-স্বজনদের অপেক্ষা করিয়ে বিকেল সাড়ে চারটার দিকে দেখা করতে দিলেও বাসা থেকে আনা রান্না করা খাবার নিতে দেওয়া হয়নি। সকাল থেকে না খেয়ে খালেদা জিয়া অপেক্ষা করছিলেন স্বজনদের সঙ্গে নিয়ে আহার করবেন। অনেক দিন পর প্রিয় নাতনিকে সঙ্গে নিয়ে খাবেন। কিন্তু কারা কর্তৃপক্ষ সরকারকে খুশি করতেই খাবার নিতে দেয়নি। অভুক্ত খালেদা জিয়া নাতনি ও আত্মীয়দের সঙ্গে খাবার খেতে পারলেন না। স্বজনদের সঙ্গে নিয়ে একসঙ্গে খাওয়ার যে আশায় তিনি সারা দিন অভুক্ত থাকলেন, সে আশা তাঁর পূরণ হলো না।

- Advertisement -

রিজভী আরও বলেন, নিজেদের ব্যর্থতা ঢাকতে বিনা ভোটের প্রধানমন্ত্রী ও সরকারের মন্ত্রীরা প্রধান রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ খালেদা জিয়া ও ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমানকে জড়িয়ে নানা বিষয়ে উদ্ভট কথা বলে যাচ্ছেন। নিরপেক্ষ সরকারের অধীনেই নির্বাচন হবে, খালেদা জিয়ার নেতৃত্বেই বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করবে। একতরফা নির্বাচনের মাধ্যমে একদলীয় ব্যবস্থা চলতে দেওয়া হবে না। আওয়ামী নেতাদের চিরকাল ক্ষমতায় থাকার স্বপ্ন দুঃস্বপ্নে পরিণত হবে।

Advertisement ---
---
-----