৭১-এর যুদ্ধের অভিযুক্ত পাকিস্তানী সেনাদের ফেরত চাইবে বাংলাদেশ

ঢাকাঃ  ‘১৯৭১ সালে যে ১৯৫ জন পাকিস্তানি সামরিক বাহিনীর সদস্য যুদ্ধাপরাধের সঙ্গে জড়িত ছিল তাদের বিচারের জন্য ফেরত চাইবে বাংলাদেশ’।  এমনই জানিয়েছেন বাংলাদেশের আইনমন্ত্রী আনিসুল হক।

আইনমন্ত্রী বলেন, ‘১৯৭৪ সালে বাংলাদেশ, ভারত এবং পাকিস্তানের মধ্যে ত্রিপাক্ষিক চুক্তিতে বলা হয়, ১৯৫ সামারিক বাহিনীর সদস্যকে পাকিস্তানে বিচার করা হবে।  এজন্য তাদের পাকিস্তানে পাঠানো হয়।  কিন্তু এখনও পর্যন্ত তাদের কোনও বিচার করা হয়নি।  আগামিদিনেও কোনও এহেন বিচার হবে বলে মনে হচ্ছে না।  ফলে তিনদেশের মধ্যে চুক্তি লঙ্ঘিত হয়েছে।  সেজন্য বাংলাদেশ ওই ১৯৫ জনের বিচার করতে চায়।   শুধু তাই নয়,  তিনি আরও জানিয়েছেন, আমরা জানি ১৯৫ জনের অনেকেই বেঁচে নেই এখনও।  কিন্তু যারা জীবিত আছে তাদের ফেরত চায় বাংলাদেশ।  আর এজন্যে যা করা দরকার তাই করা হবে বলে জানান আইনমন্ত্রী।  পাশাপাশি আনিসুল হক বলেন, ‘আন্তর্জাতিক যুদ্ধাপরাধ ট্রাইব্যুনাল স্থানীয় মানবতাবিরোধীদের বিচার করার পরে তারা এই ১৯৫ জনের যুদ্ধাপরাধের বিষয়টি তদন্ত করে দেখছে।’

তিনদেশের মধ্যে হওয়া ত্রিপাক্ষিক চুক্তিতে কি বলা হয়েছে?  

- Advertisement -

ইন্টানেট থেকে পাওয়া তথ্যে জানা গিয়েছে,  ১৯৭৪ সালের ৯ এপ্রিল নয়াদিল্লিতে স্বাক্ষরিত ১৯৭৪ চুক্তিতে বলা হয়েছে, যেসব যুদ্ধবন্দীদের দ্বারা সংঘটিত বাড়াবাড়ি ও অপরাধ অবশ্যই বিবেচনায় নিতে এবং আইনের যথাযথ প্রক্রিয়া অনুসরণ করতে হবে।  চুক্তিতে বলা হয়েছে, যুদ্ধাপরাধ, মানবতার বিরুদ্ধে অপরাধ ও গণহত্যার পরিকল্পনকারী ও সংঘটনকারীরা কখনও শাস্তি মওকুফ বা বিচার প্রক্রিয়া থেকে রেহাই পাবে না।

Advertisement ---
---
-----