ঢাকা:  উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি) বাংলাদেশের রেলখাতের উন্নয়নে ৩৬ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে। বর্তমান বিনিময় হার অনুযায়ী বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ প্রায় ৩ হাজার কোটি টাকা। এরমধ্যে ৩৫ কোটি ৪০ লাখ ডলার অর্ডিনারি ক্যাপিটাল রিসোর্সেস (ওসিআর) বা কিছুটা কঠিন শর্তের ঋণ।

বাকি ৬০ লাখ ডলার সহজ শর্তে পাচ্ছে সরকার। ওসিআর ঋণের জন্য লন্ডন আন্তঃব্যাংক সুদহারের সঙ্গে ১ শতাংশ সার্ভিস চার্জ ও কমিটমেন্ট চার্জসহ চার শতাংশের কিছুটা সুদ হার হতে পারে। আর সহজ শর্তের ঋণের জন্য ২ শতাংশ হারে সুদ দিতে হয়। এই সুদ নিয়ে ৫ বছরের রেয়াতকালসহ ২৫ বছরে এ ঋণ পরিশোধ করতে হবে।

Advertisement

ঢাকার শেরে বাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষে এ বিষয়ে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি) ও এডিবি’র মধ্যে একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়েছে। চুক্তিতে ইআরডি সচিব মো. কাজী শফিকুল আযম এবং এডিবি‘র আবাসিক প্রতিনিধি মনমোহন প্রকাশ স্বাক্ষর করেন। স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে জানানো হয়, এই ঋণের অর্থ দিয়ে বাংলাদেশ রেলওয়ের বহরে মালামাল পরিবহণের জন্য এক হাজারটি বগি ওয়াগন সংগ্রহ করা হবে। এরমধ্যে ৪০০টি মিটার গেজ, ৩০০টি ব্রড গেজ বগি কাভার্ড ওয়াগন সংগ্রহ করা হবে। পাশাপাশি এ ঋণের অর্থ দিয়ে রেলের জন্য ১৮০টি মিটার গেজ ও ১২০টি ব্রড গেজ ওপেন ওয়াগন সংগ্রহ করা হবে।

এছাড়াও ৭৫টি মিটার গেজ ও ৫০টি ব্রড গেজ লাগেজ ভ্যান, ৪০টি ব্রড গেজ ডিজেল লোকোমোটিভ সংগ্রহ ছাড়াও রেলের আধুনিকায়ন করা হবে। স্বাক্ষর অনুষ্ঠানে ইআরডি সচিব বলেন, “চলতি অর্থবছরের জন্য সাড়ে সাত বিলিয়ন ডলারের বৈদেশিক সহায়তা সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রার প্রথম চুক্তি এটি। এ সংস্থাটির সঙ্গে শিগগির আরও একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হতে পারে। অুনষ্ঠানে এডিবি‘র আবাসিক প্রতিনিধি মনমোহন প্রকাশ বলেন, “বর্তমান সরকারের সপ্তম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনা বাস্তবায়নে আমরা সার্বিক সহযোগিতা করতে চাই। এ প্রকল্পের মাধ্যমে বাংলাদেশের রেলের উন্নয়নে অবদান রাখবে।

----
--