পুনে: ২,০৪৩ কোটি টাকার তছরূপের মামলা ঘিরে সামনে এল দুর্নীতি৷ এই দুর্নীতি চলেছে ডিএসকে ডেভেলপার লিমিটেড নামে এক সংস্থাকে ঘিরে। এই ঘটনায় জড়িত সন্দেহে ব্যাংক অফ মহারাষ্ট্রের এমডি তথা সিইও রবীন্দ্র মারাঠেকে গ্রেফতার করা হয়েছে৷

এছাড়াও গ্রেফতার করা হয়েছে ব্যাংকের প্রাক্তন সিইও সুশীল মুহনোট, ব্যাঙ্কের জোনাল ম্যানেজার নিত্যানন্দ দেশপান্ডেকে৷ তারাও এই দুর্নীতির মধ্যে জড়িত বলে সন্দেহ ছিল পুলিশের।পুনে পুলিশের ইকোনমি অফেন্স বিভাগ এই গ্রেফতারি চালায়৷ এই ঘটনায় জড়িয়ে থাকার অভিযোগ উঠেছে ব্যাংকের এক্সিকিউটিভ ডিরেক্টর রাজেন্দ্র গুপ্তা ও অন্য ২ ব্যাংক কর্মীকে।

অভিযোগ রবীন্দ্র মারাঠে ও অন্যান্য অভিযুক্তরা নিয়মবহির্ভূতভাবে ডিএসকে ডেভেলপারকে কোটি কোটি টাকার ঋণ দিয়েছে বলে অভিযোগ৷ অভিযোগ ব্যাংক অফ মহারাষ্ট্র, রিজার্ভ ব্যাংকের নির্দিষ্ট নিয়ম না মেনে কোটি কোটি টাকা ঋণ দিয়েছে ওই সংস্থাকে।

পুলিশের অনুমান ব্যাংক অফিসাররা ডিএসকে ডেভেলপার লিমিটেডের সঙ্গে যোগসাজস করে এই বিপুল পরিমাণ আর্থিক দুর্নীতিতে মদত দিয়েছে। বিভিন্ন হোমপ্রজেক্টে গ্রাহকদের থেকে টাকা চুরি করা, ব্যাংক থেকে দুর্নীতির পথে ঋণ নেওয়ার মত ঘটনার সঙ্গে জড়িত ছিল এই সংস্থা৷

দেশপাণ্ডে ও মুহনোটকে জয়পুর ও আমেদাবাদ থেকে গ্রেফতার করা হয়েছে। ব্যাংকের চিফ ইঞ্জিনিয়ার ও ভাইস প্রেসিডেন্ট রাজীব নিওয়াস্কারও ঘটনার সঙ্গে জড়িত বলে সন্দেহ করে পুলিশ। ইকোনমি অফেন্স সংস্থা (‌ইওডব্লিউ)‌ বুধবারই ব্যাঙ্কের চেযারম্যানকে গ্রেফতার করে। জানা গিয়েছে, পুনের ডিএসকে সংস্থাকে মহারাষ্ট্র ব্যাংকের পক্ষ থেকে ৩ হাজার কোটি টাকার ভুয়ো ঋণ দেওয়া হয়।

সূত্রের খবর, পুনের এই সংস্থার মালিক ডি এস কুলকার্নি এবং তাঁর স্ত্রী হেমান্তিকে এ বছরের ফেব্রুয়ারিতে গ্রেফতার করা হয়। তাঁদের বিরুদ্ধে সংস্থার প্রায় চার হাজার বিনিয়োগকারীর ১,১৫০ কোটি টাকা লোপাট করে দেওয়ার এবং ২,৯০০ কোটি টাকার ব্যাংক ঋণ ফেরত না দেওয়ার অভিযোগ ছিল।

ব্যাঙ্কের আধিকারিকরা ওই সংস্থার সঙ্গে রীতিমতো আঁতাত করে মোটা টাকার ঋণ ওই সংস্থাকে পাইয়ে দেয়। এরপর ওই টাকা পাচার করা হয় এবং ব্যাংক কর্মীদের মধ্যে ভাগ–বাঁটোয়ারাও হয়। ধৃতদের বিরুদ্ধে দুর্নীতি, প্রতারণা, অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র, বিশ্বাস ভঙ্গ সহ বিভিন্ন ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে। এই মামলাতে মহারাষ্ট্র সরকার সংস্থার ১২০ টি সম্পত্তি, ২৭৫টি ব্যাংক অ্যাকাউন্ট এবং ৪৮টি গাড়ি বাজেয়াপ্ত করার নির্দেশ দেয় তদন্তকারীদের।

----
--