স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: চোলাই মদ নিয়ে যখন রাজ্য রাজনীতি সরগরম, ঠিক তখনই এই ঘটনায় বড় সড় সাফল্য পেল বাঁকুড়া জেলা পুলিশ। গোপন সূত্রে খবর পেয়ে শনিবার রাতে আচমকাই বাঁকুড়া সদর থানা এলাকার আগয়া, কেন্দুকুনিয়া গ্রামে অতর্কিতে হানা দেয় সংশ্লিষ্ট থানার পুলিশ বাহিনী। এই ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে দু’জনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

রবিবার পুলিশ সূত্রে পাওয়া খবরে জানা গেছে, খবর পাওয়া যায় আগয়া ও কেন্দুকুনিয়া গ্রামে গোপনে চোলাই মদের রমরমা কারবার চলছে। খবর পেয়েই আর দেরি করেনি পুলিশ। রাতেই ওই দুই গ্রামে তড়িঘড়ি অভিযান চালিয়ে ১০ লিটার আই.ডি লিকার, ২৫ বোতল দেশী মদ, দু’টিন ও আলাদাভাবে ২৫ কেজি মদ তৈরীর সামগ্রী পুলিশ উদ্ধার করে।

এই ঘটনায় যুক্ত থাকার অভিযোগে সদর থানার পুলিশ আগয়া গ্রাম থেকে গৌতম মণ্ডল ও কেন্দুকুনিয়া থেকে সৌরভ মণ্ডলকে গ্রেফতার করেছে। রবিবার তাদের জিজ্ঞাসাবাদের পর বাঁকুড়া জেলা আদালতে তোলা হয়৷ এই ঘটনায় আরও কেউ যুক্ত আছে কিনা ধৃতদের জিজ্ঞাসাবাদের পর নিশ্চিত করতে চাইছে পুলিশ। সেরকম কোন তথ্য পেলে বাকিদেরও সন্ধানে পুলিশ জোরদার তল্লাশি চালাবে বলে জানা গিয়েছে৷

জেলার বিভিন্ন অংশে এই চোলাই মদের রমরমিয়ে কারবার চলছে বলে প্রায়শই অভিযোগ ওঠে। এর ফলে কমবয়সীরাও এই নেশায় আসক্ত হয়ে পড়ছে বলে খবর। পুলিশের ধারাবাহিক অভিযান না থাকার ফলেই এই ধরণের ঘটনার বাড়বাড়ন্ত বলে অনেকে অভিযোগ করছেন।

 

আগয়া-কেন্দুকুনিয়া গ্রামের মতো জেলার সর্বত্র এই ধরণের অতর্কিতে অভিযান জেলা জুড়েই পুলিশের পক্ষ থেকে ধারাবাহিকভাবেই করা হোক। এমন দাবিই এখন জোরালো হতে শুরু করেছে। চোলাই কাণ্ডে যুক্ত থাকার অভিযোগে ধৃত দুই কারবারি গৌতম মণ্ডল ও সৌরভ মণ্ডল এবিষয়ে সাংবাদিকের কোন প্রশ্নের উত্তর দিতে চায়নি। পুলিশের পক্ষ থেকে ঘটনার তদন্ত চলছে ও ধারাবাহিক অভিযান চলবে বলে জানানো হয়েছে।

--
----
--