ফাইল ছবি

স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: রাজ্য জুড়ে যখন শাসক দলের বিরুদ্ধ অভিযোগের আঙ্গুল উঠছে, তখন উল্টো ছবি দেখাগেল বাঁকুড়ায় ওন্দা ব্লকে৷

জেলা তৃণমূলের তরফে অভিযোগ করা হয়েছে তাদের প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র জমা দিতেগেলে বিজেপির নেতা-কর্মীরা তাদের পথ আটকায়৷ লাঠি, টাঙ্গি আর রড নিয়ে তাদের উপর চড়াও হয়৷

ওন্দার তৃণমূল নেতা ভবানী মোদক বলেন, বিজেপি সম্পূর্ণ পরিকল্পিতভাবে এই কাজ করেছে। তাদের এই অত্যাচারের হাত থেকে রেহাই পায়নি পুলিশ কর্মীরাও৷ তারাও প্রহৃত হয়েছেন৷ তাঁর আরও দাবি, ওদের মূল উদ্দেশ্য তৃণমূল কর্মীদের ভয় দেখিয়ে মনোনয়নপত্র জমা দেওয়া থেকে বিরত রাখতে এমন ঘটনা ঘটাচ্ছে বিজেপি৷ কিন্তু এই কাজে তারা সফল হবেনা ৷

যদিও বিজেপি নেতৃত্বের পক্ষ থেকে তৃণমূলের অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে। তাদের দাবী, তৃণমূল নেতৃত্বই উস্কানীমূলক মন্তব্য করছেন। তারা ওন্দা সহ বাঁকুড়া জেলায় বিজেপির উত্থান মেনে নিতে পারছেন না। তাই এই ধরণের আজগুবি অভিযোগ করছেন৷

অন্যদিকে, মনোনয়ন পত্র তুলতে গিয়ে তালডাংরা ব্লক অফিসে বাধার সম্মুখীন হলেন বিজেপি কর্মীরা। তৃণমূল কর্মীরা তাদের কর্মী-সমর্থকদের ব্লক চত্বর থেকে টেনে হিঁচড়ে বের করে দেয় বলে বিজেপির জেলা নেতৃত্বের অভিযোগ। ফলে তাদের ভোট পদ প্রার্থীরা মনোনয়নপত্র তুলতে না পেরে বিজেপি কর্মীরা ফিরে আসতে বাধ্য হয়েছেন বলে দাবি বিজেপি নেতৃত্বের।

তৃণমূল নেতৃত্ব যথারীতি অভিযোগ অস্বীকার করেছে। তৃণমূল যুব কংগ্রেসের তালডাংরা ব্লক সভাপতি তাপস সূর বলেন, যেকোনো রাজনৈতিক দল নির্বাচনে প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতেই পারে। তালডাংরায় বাধা দেওয়ার মতো কোন ঘটনাই ঘটেনি। আমাদের সমর্থকরা নিজেদের মধ্যে হৈ হুল্লোড় করছিল।

বিজেপির বাঁকুড়া জেলা সভাপতি বিবেকানন্দ পাত্র Kolkata24×7কে টেলিফোনে বলেন, বিজেপি কর্মীদের ভয় পাচ্ছে তৃণমূল। তাই রাজনৈতিকভাবে আটকাতে না পেরে ওরা পেশি শক্তির আশ্রয় নিচ্ছে। তালডাংরাতে আজ পুলিশ আর প্রশাসনকে কাজে লাগিয়ে তৃণমূল যা করলো তাতেই পরিষ্কার ওরা আমাদের ভয় পেয়েছে। শুধু তালডাংরা নয় জেলার সব কটি ব্লক অফিসে তৃণমূল ভাড়াটে গুণ্ডা মজুত রেখেছে। এতোসব করেও বিজেপিকে আটকানো সম্ভব নয় বলে তার দাবী।

বিজেপি-তৃণমূল নেতৃত্ব পরস্পরকে দোষারোপ করলেও এক সময়ের বাম রাজনীতি তালডাংরায় এদিন সেভাবে সিপিএমকে ময়দানে নামতে দেখা যায়নি। তবে তৃণমূল-বিজেপি চাপান উতোরে সারাদিন উত্তপ্তই ছিল তালডাংরা বাজার। যেকোনো ধরণের অপ্রীতিকর পরিস্থিতি এড়াতে বিশাল পুলিশ বাহিনী মোতায়েন রয়েছে। তালডাংরা বাজার ও ব্লক অফিস চত্বরেও কড়া নজরদারি রয়েছে পুলিশের।

----
--