চোট পেয়ে তিন সপ্তাহ মাঠের বাইরে মেসি

বার্সেলোনা: ম্যাচ শুরুর দু’মিনিটের মধ্যেই ফিলিপ কুটিনহো’কে দিয়ে গোল করালেন। এর ঠিক দশ মিনিট বাদে নিজেই নাম তুললেন স্কোরশিটে। শনিবাসরীয় ন্যু ক্যাম্পে সেভিয়ার বিপক্ষে সবকিছু ঠিকঠাকই শুরু করেছিলেন লিওনেল মেসি। কিন্তু হঠাৎই ছন্দপতন।

ম্যাচের বয়স তখন সবেমাত্র ১৭ মিনিট। বিপক্ষ ডিফেন্ডারের সঙ্গে বল দখলের লড়াইয়ে গিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লেন মেসি। মাটিতে পড়েই ডান হাত ধরে যন্ত্রণায় ছটফট করতে থাকলেন আর্জেন্তাইন তারকা। এরপর তাঁকে শুশ্রূষার জন্য মাঠে ছুটে এল মেডিক্যাল টিম। মেসির পক্ষে আর খেলা চালিয়ে যাওয়া সম্ভব হয়নি। অনুরাগীদের দুশ্চিন্তা বাড়িয়ে এভাবেই শনিবার আহত হয়ে মেডিক্যাল স্টাফেদের সঙ্গে ন্যু ক্যাম্পে ছাড়লেন লিও।

মেসি মাঠ ছেড়ে গেলেও বার্সার জয় এদিন আটকায়নি কোনও ভাবেই। তবে আগামী তিন সপ্তাহের জন্য মাঠের বাইরে হয়ে দলের থিঙ্কট্যাঙ্কের চিন্তা বাড়িয়ে গেলেন লিওনেল মেসি। প্রাথমিক রিপোর্টে প্রকাশ, আগামী সপ্তাহে হাইভোল্টেজ এল-ক্লাসিকো এবং চ্যাম্পিয়নস লিগে ইন্টার মিলানের বিপক্ষে দুটি লেগেই তাঁকে ছাড়া মাঠে নামতে হবে কাতালান ক্লাবটিকে।

মেসির পরিবর্ত হিসেবে এদিন মাঠে নামেন দেম্বেলে। প্রথমার্ধে দু’গোলে এগিয়ে থেকে দ্বিতীয়ার্ধে প্রতিপক্ষকে আরও আরও দুটি গোল দেয় বার্সেলোনা। যদিও দ্বিতীয়ার্ধে দুটি গোল করে ব্যবধান কমায় সেভিয়া। তবে তাতে করে তিন পয়েন্ট তুলে নিয়ে লিগ টেবিলের শীর্ষে যেতে অসুবিধে হয়নি ভালভের্দের ছেলেদের।

তবে অবশ্যই মেসির চোট আগামী কয়েকটি ম্যাচের জন্য চিন্তায় রাখবে ক্লাব কর্তৃপক্ষকে। মাঠ ছাড়ার পর প্রাইভেট কারে মেসিকে এদিন ক্লাবের মেডিক্যাল সেন্টারে নিয়ে যাওয়া হয়। সেখানেই প্রাথমিক ভাবে মেসিকে কমপক্ষে তিন সপ্তাহের জন্য অনিশ্চিত ঘোষণা করা হয়। এমনকি তাঁর ডান হাতের র‍্যাডিয়াল বোনে চিড় ধরেছে বলে ক্লাবের তরফ থেকে অফিসিয়াল বিবৃতিতে জানানো হয়েছে। সুস্থ হতে মেসির মাঠে ফিরতে তিন সপ্তাহের মত সময় লাগবে বলে জানিয়েছে ক্লাব কর্তৃপক্ষ। অর্থাৎ চ্যাম্পিয়নস লিগে ইন্টারের বিরুদ্ধে দুটি ম্যাচ, লা লিগায় এল-ক্লাসিকো সহ মোট ছ’টি ম্যাচ মাঠের বাইরে থাকতে হবে বার্সার মধ্যমণিকে।

----
-----