ভারত-পাক ম্যাচ নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বৈঠকে বিসিসিআই

মুম্বই: পুলওয়ামায় পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি সংগঠনের হামলার আঁচ অচিরেই গিয়ে পড়েছে ক্রিকেটের বাইশ গজে। ১৪ ফেব্রুয়ারি উপত্যকায় নৃশংস জঙ্গিহামলার ঘটনার পর বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের ম্যাচ খেলা উচিৎ কিনা, সেই নিয়ে দ্বিধাবিভক্ত ক্রিকেটমহল। মঙ্গলবার যদিও ম্যাচ নিয়ে তাদের অবস্থান স্পষ্ট করে দিয়েছে ক্রিকেটের নিয়ামক সংস্থা। তবে ১৬ জুন ম্যাঞ্চেস্টারে ভারত-পাক ম্যাচ নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতে বুধবার আলোচনায় বসছে বিসিসিআই।

পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিশ্বকাপে ভারতের ম্যাচ বয়কট করা উচিৎ। এমন দাবি জানিয়ে ইতিমধ্যেই সরব হয়েছেন হরভজন সিং। টার্বুনেটরের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়েছেন অনেক ক্রিকেট অনুরাগীই। কিন্তু ১৬ জুন ভারত-পাক মহারণ হতে চলেছে আসন্ন বিশ্বকাপের অন্যতম ইউএসপি। তাই বিশ্বকাপের মত আসরে সেই ম্যাচ বয়কট করা কতটা যুক্তিযুক্ত হবে সেই নিয়ে সিদ্ধান্ত নিতেই ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ডের এই বৈঠক বলে জানা গিয়েছে। প্রয়োজনে পিসিবি’র সঙ্গে এবিষয়ে আলোচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন বোর্ড কর্তারা।

আরও পড়ুন: বিশ্বকাপে ভারত-পাক ম্যাচ নিয়ে সিদ্ধান্ত জানাল আইসিসি

- Advertisement -

 

৩০ জুন ইংল্যান্ড ও ওয়েলসের মাটিতে বসছে দ্বাদশ ক্রিকেট বিশ্বকাপের আসর। কিন্তু টুর্নামেন্টের ইউএসপি ১৬ জুন ওল্ড ট্র্যাফোর্ডে ভারত-পাক মহারণ। এই ম্যাচের দিকেই তাকিয়ে থাকে ক্রিকেটবিশ্ব। পরিস্থিতি বিবেচনা করে বিসিসিআইয়ের এক সিনিয়র কর্তা তাই হরভজনের যুক্তিকে খণ্ডন করে বলেন,‘হরভজন বিশ্বকাপে পাকিস্তানের বিরুদ্ধে ভারতের ম্যাচ না-খেলা নিয়ে মন্তব্য করেছে। কিন্তু নক-আউট পর্যায়ে ভারত ও পাকিস্তান মুখোমুখি হলে ভারতের ম্যাচ ছেড়ে দেওয়া উচিত কিনা, তা নিয়ে পরিষ্কার করেননি তিনি। সুতরাং এখনই আমাদের ভারত-পাক ম্যাচের ভবিষ্যদ্বাণী করা ঠিক হবে না।’

আরও পড়ুন: ইডেনকে মিস করবেন নাইট কাপ্তান দীনেশ

সিনিয়র ওই বোর্ড কর্তা আরও বলেন, ‘রেকর্ড বলছে, কার্গিল যুদ্ধ চলার সময়ও ১৯৯৯ বিশ্বকাপে ভারত পাকিস্তানের বিরুদ্ধে খেলেছে। তবে এখন আমরা কঠিন পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যাচ্ছি। যারা এই ঘৃন্য চক্রান্ত করেছে সরকার নিশ্চয় তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে।’ অর্থাৎ পরিস্থিতি যাই হোক সরকারের সিদ্ধান্তকেই ম্যাচ খেলার বিষয়ে সর্বাগ্রে প্রাধান্য দেওয়া হবে সেটা হাবে ভাবে বুঝিয়ে দিয়েছেন তিনি। তবে ৪০ জন জওয়ানের বীরগতি হওয়ার ঘটনার পর দু’দেশের রাজনৈতিক চাপান-উতোরের মাঝে বিসিসিআইয়ের এদিনের বৈঠক ভীষণই তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে।

আরও পড়ুন: ইস্টবেঙ্গল-কাশ্মীর ম্যাচের ভেন্যু নিয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নিল ফেডারেশন

এদিকে সূচি অপরিবর্তিত রেখে পুলওয়ামা পাক মদতপুষ্ট জঙ্গি হামলায় শহিদ ভারতীয় জওয়ানদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে আইসিসি সিইও ডেভিড রিচার্ডস মঙ্গলবার বলেন, ‘কাশ্মীরে জঙ্গি হামলায় ক্ষতিগ্রস্থদের আমাদের সহানুভূতি রয়েছে। আমাদের দল পরিবর্ত পরিস্থিতির উপর নজর রেখে চলেছে। কিন্তু বিশ্বকাপে ভারত-পাকিস্তান ম্যাচ না-হওয়ার কোনও কারণ নেই। ক্রিকেট মানুষকে একত্রিত করার ক্ষমতা রাখে।’ সবমিলিয়ে ক্রিকেট বোর্ডের কোর কমিটির বৈঠকে বুধবার কী সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়, এখন সেটাই দেখার।