ঢাকা: রাজনৈতিক নেতৃত্ব, ব্যবসায়ী, সাংবাদিক, কূটনীতিক ও বুদ্ধিজীবী অপহরণের ঘটনায় আলোড়িত হয়েছে বাংলাদেশ৷ এবার খোদ শিক্ষামন্ত্রীর দুই সহকারীকে অপহরণ করা হয়েছে৷ ঘটনায় তোলপাড় হতে শুরু করেছে রাজনৈতিক মহল৷

অপহৃত দু’জনের একজন শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদের ব্যক্তিগত সহকারী মহ. মোতালেব৷ অন্যজন হলেন উচ্চশিক্ষা দফতরের শীর্ষ কর্তা মহ. নাসিরউদ্দিন। ঘটনায় স্তম্ভিত খোদ শিক্ষামন্ত্রী৷ অপহৃতদের উদ্ধার করতে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রকে চিঠি পাঠিয়েছে শিক্ষা মন্ত্রক৷

- Advertisement -

সম্প্রতি অপহরণ ও গুম সংক্রান্ত বিষয়টি নিয়ে বাংলাদেশ সরকারের অস্বস্তি বাড়িয়েছে আন্তর্জাতিক রিপোর্ট৷ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচের রিপোর্ট বলছে,  আওয়ামি লিগ সরকারের আমলে, বাংলাদেশের পুলিশ ও আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ২০১৩ সাল থেকে শত শত মানুষকে গোপন স্থানে অবৈধভাবে আটকে রেখেছে৷ এদের মধ্যে কয়েকজন বিরোধী নেতা রয়েছেন।

বাংলাদেশ শিক্ষামন্ত্রক জানাচ্ছে,  শনিবার বিকেলে নাগাদ বাড়ি থেকে বেরিয়েছিলেন  মহ. মোতালেব। এরপর তাঁর কোনও খোঁজ পাওয়া যাচ্ছে না।  মোবাইল ফোন বন্ধ আছে। পরিবারের তরফে ঢাকার হাজারীবাগ থানায় জিডি করা হয়েছে৷ বৃহস্পতিবার থেকে খোঁজ নেই উচ্চশিক্ষা দফতরের শীর্ষ কর্তা মহ. নাসিরউদ্দিনের৷ ঢাকায় সচিবালয়ের দিকে আসার পথে অপহৃত হন তিনি৷ তাঁর পরিবারের তরফে ঢাকার বনানী থানায় জিডি করা হয়েছে৷

সম্প্রতি বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক মোবাশ্বার হাসান সিজার, সাংবাদিক উৎপল দাস, ব্যবসায়ী অনিরুদ্ধ কুমার রায় নিখোঁজ হন। তবে তাঁরা ফিরে এসেছেন। প্রতিক্ষেত্রে মুক্তিপণ নিয়ে অপহৃতদের ফিরিয়ে দেওয়া হয়৷ তবে এখনো খোঁজ নেই  প্রাক্তন রাষ্ট্রদূত মারুফ জামান সহ কয়েকজনের৷

পড়ুন: বাংলাদেশে শতাধিক মানুষকে অপহরণ করা হয়েছে: রিপোর্ট

----