‘চোখের সামনে ৩ জনকে পিটিয়ে মারল হাজার পাঁচেক জনতা’

ফাইল ছবি

পাটনা: বেগুসরাইয়ের ঘটনায় ৩ অভিযুক্তকে পিটিয়ে মেরেছিল হাজার পাঁচেক জনতা৷ এমনই রিপোর্ট প্রকাশ করল বিহার পুলিশ৷ শুক্রবার বেগুসরাইয়ে শিশু অপহরণকারী সন্দেহে তিন ব্যক্তিকে পিটিয়ে মারে উন্মত্ত জনতা৷

মুকেশ মাহাতো, হিরা সিং ও শ্যাম সিং বেগুসরাইয়ের পানশালা গ্রামের নভশ্রীজিত প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঢুকে পাঁচ বছরের ছাত্রীকে অপহরণের চেষ্টা করে বলে অভিযোগ৷ প্রধান শিক্ষকের চ্যাঁচামেচিতে জড়ো হয়ে যায় গ্রামের মানুষ৷ স্থানীয় বাসিন্দারা ওই তিন অভিযুক্তকে ধরে ফেলেন৷ তারপরেই শুরু হয় মারধর৷

আরও পড়ুন: কর্ণাটক অংকে মুখ্যমন্ত্রী পদের দাবি ওয়াইসির

- Advertisement -

ইঁট, পাথর ও লোহার রড দিয়ে হামলা চালানো হয়৷ মারের চোটে অচৈতন্য হয়ে পড়ে ওই তিনজন৷ ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় তাদের৷ প্রত্যেক অভিযুক্তেরই অপরাধমূলক কাজকর্মে জড়িয়ে পড়ার রেকর্ড রয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ৷ তবে প্রশাসন গণপিটুনিতে অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেবে বলে জানিয়েছে৷

শুক্রবার গোরক্ষার নামে গণপিটুনির বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে রাজ্যগুলিকে আগেই নির্দেশ দিয়েছিল সুপ্রিম কোর্ট৷ নির্দিষ্ট সময়ের মধ্যে রিপোর্টও জমা দিতে বলা হয়েছিল রাজ্যগুলিকে৷ কিন্তু ২৯টি রাজ্যের মধ্যে মাত্র ১১টি রাজ্য ও সাতটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চল রিপোর্ট জমা দেওয়ায় ক্ষুব্ধ হয় শীর্ষ আদালত৷ সময়সীমা বেঁধে দিয়ে বাকি ১৮টি রাজ্যকে গণপিটুনি বন্ধ করতে কী ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে তা রিপোর্ট আকারে পেশ করার নির্দেশ দেন সুপ্রিম কোর্টের প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্র৷

আরও পড়ুন: সাম্প্রদায়িক AIMIM নিষিদ্ধ করার দাবিতে পিটিশন দায়ের

শুক্রবার প্রধান বিচারপতি দীপক মিশ্রের নেতৃত্বাধীন বিচারপতি এ এম খাইলকর ও বিচারপতি ডি ওয়াই চন্দ্রচূড়ের বেঞ্চ শেষবারের মতো সময় দিল ১৮টি রাজ্যকে৷ এক সপ্তাহ সময়সীমা বেঁধে দিয়ে কড়া ভাবে জানিয়ে দেয় এর মধ্যে রিপোর্ট জমা দিতে না পারলে রাজ্যের মুখ্যসচিবকে আদালতে সশরীরে হাজির হতে হবে৷

Advertisement ---
---
-----