কলকাতাঃ  রাজ্যে ক্ষমতায় আসার পরেই কর্মীদের উপস্থিতি নিয়ে কড়া মনোভাব দেখিয়ে ছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সেই মতো একগুদ্ধ সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন তিনি। মূলত রাজ্যে কর্মসংস্কৃতি ফেরাতেই উদ্যোগী হন তিনি। এবার সেই পথেই রাজ্য বিধানসভা ভবন। এমনটাই বাংলা এক সংবাদমাধ্যমে প্রকাশিত হয়েছে।

প্রকাশিত খবর মোতাবেক, বিধানসভার কর্মীদেরও হাজিরা নিয়ে কড়া ব্যবস্থা নিতে চায় কতৃপক্ষ। আর তার প্রথম ধাপ হিসাবেই হাজিরা খাতা তুলে দেওয়া হচ্ছে। বসানো হচ্ছে বায়োমেট্রিক প্রযুক্তি। এই পদ্ধতিতে কর্মীদের যখন-তখন আসা অনেকটাই আটকানো যাবে বলে মনে করা হচ্ছে।

ইতিমধ্যে শহরে কিড স্ট্রিটের বিধায়ক আবাসে এই প্রযুক্তি বসানো হয়েছে। মুলতকর্মীদের নিয়মানুবর্তিতা ও শৃঙ্খলায় জোর দিতে চায় বিধানসভার সচিবালয়। তার জেরে শুরু হয়েছে হাজিরা খাতার বিকল্প হিসেবে আঙুলের ছাপ দেওয়া বায়োমেট্রিক প্রযুক্তির ব্যবহার। অধ্যক্ষ বিমান বন্দ্যোপাধ্যায় বাংলা এক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, প্রথমে এমএলএ হস্টেলে চালু হচ্ছে। এরপর বিধানসভা ভবনেও কর্মীদের হাতের ছাপ দিয়ে হাজিরা দিতে হবে। প্রায় সাতশো কর্মী রয়েছেন বর্তমান বিধানসভা ভবনে। সমস্ত কর্মীদেরই এর মধ্যে আনা হবে বলে জানা গিয়েছে।

অন্যদিকে, বিধানসভায় বেশ কর্মী নিয়োগেরও ভাবনা চিন্তা কতৃপক্ষের। কারণ যত দিন যাচ্ছে তত কাজের চাপ বাড়ছে। কিন্তু সেই অর্থে কোন কর্মী নেই। কিন্তু এখন কর্মী নেওয়ার প্রয়োজন হয়ে পড়ছে। আর সেই কারণেই খুব শীঘ্রই কর্মী নেওয়া হবে বলে জানা গিয়েছে।

----
--