মাঠে নামলেন বীরভূমের জেলা শাসক

স্টাফ রিপোর্টার, সিউড়ি: দ্রুত জমি চাই৷ বীরভূমের লোবা ছুটে গেলেন জেলাশাসক। কয়লা খনির কাজ শুরু করতে হবে দ্রুত। তাই এবার আক্ষরিক অর্থে মাঠে নামলেন বীরভূম জেলা শাসক মৌমিতা গোদারা বসু। শান্তিপূর্ণ ভাবে জমি হস্তান্তরের লক্ষ্যে ঘুরে দেখলেন লোবা গ্রামের বসতি এলাকা। শুরু হল পুনর্বাসনের পরিকল্পনা করাও।

লোবা গ্রামে গিয়ে গ্রামে কয়েকটি স্কুল, মানুষের জীবনযাত্রা সম্পর্কে একটা ধারণা তৈরি করলেন বীরভূমের জেলা শাসক মৌমিতা গোদারা বসু। তাঁর সঙ্গে গেলেন ভূমি ও রাজস্ব অধিকর্তা পূর্ণেন্দু মাজি। পরবর্তীকালে এই গ্রামটিকে পুরোপুরিভাবে অন্য একটি জায়গায় নিয়ে প্রতিষ্ঠা করার জন্য মানুষের কী কী প্রয়োজন সেই বিষয়ে মানুষের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা৷

ইতিমধ্যে জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে ফিল্ড সার্ভে। তার পরিবর্তে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে প্রশাসনের কাছে থাকা পুরনো নথি থেকেই তৈরি করা হবে জমির মালিকানার তালিকা। সেই তালিকা ঝুলিয়ে দেওয়া হবে গ্রামে। তালিকা দেখে যাদের অসন্তোষ থাকবে তারা যোগাযোগ করবেন জেলা প্রশাসনে। উপযুক্ত নথি দেখাতে পারলে তাদের নাম তালিকায় যুক্ত করা হবে।

- Advertisement -

তালিকা যত দ্রুত তৈরি হবে তত দ্রুত ক্ষতিপূরণের বিষয়ে আলোচনা শুরু করা যাবে। তবেই শুরু করা যাবে কয়লা খনিকে বাস্তব রূপ দেওয়ার কাজ। মার্চের আগে সেই কাজ শেষ করতে আপাতত তৎপর প্রশাসন।

Advertisement
----
-----