স্টাফ রিপোর্টার, কোচবিহার: তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মী খুনের ঘটনায় অভিযোগের তির বিজেপির দিকে৷ এই ঘটনায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে কোচবিহার ২ নম্বর ব্লকের ঢাংঢিংগুড়ি এলাকায়৷ মৃত তৃণমূল কর্মীর নাম কুদ্দুস আহমেদ (৩৩)৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, শুক্রবার রাত ন’টা নাগাদ বাজার করে মোটরবাইকে চেপে বাড়ি ফিরছিল কুদ্দুস৷ সেই সময় তাঁকে লক্ষ্য করে দুষ্কৃতীরা গুলি চালায়৷

আরও পড়ুন: সুনামির করাল গ্রাসে এখনও অবধি মৃত ৫০!

গুলির শব্দে স্থানীয়রা ঘটনাস্থলে আসে৷ তাঁরা দেখেন রক্তাক্ত অবস্থায় কুদ্দুস মাটিতে পড়ে আছে৷ তাঁরা সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে উদ্ধার করে কোচবিহার এমজেএন হাসপাতালে নিয়ে যায়৷ সেখানেই চিকিৎসকরা তাঁকে মৃত বলে ঘোষণা করে৷

তৃণমূল কংগ্রেসের দাবি, গত বুধবার বাংলা বনধের দিন বনধের বিরুদ্ধে এলাকায় প্রচার চালায় কুদ্দুস৷ সেই দিন এই নিয়ে বিজেপির সঙ্গে তার গণ্ডগোল হয়৷ সেই কারণেই বিজেপি আশ্রিত দুষ্কৃতীরা তাঁকে খুন করেছে৷

আরও পড়ুন: হাসিনা সরকারের শর্ত মেনেই রবিবার সমাবেশে খালেদার দল

ঘটনায় কুদ্দুসের পরিবার চার বিজেপি কর্মীর বিরুদ্ধে পুন্ডিবাড়ি থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করে৷ সেই অভিযোগের ভিত্তিতে শুক্রবার রাতেই অভিযুক্ত চার বিজেপি কর্মীকে গ্রেফতার করেছে পুন্ডিবাড়ি থানার পুলিশ৷ পাশাপাশি ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ৷

যদিও বিজেপির বিরুদ্ধে আনা এই অভিযোগ অস্বীকার করেছে৷ তাদের দাবি, তৃণমূল কংগ্রেসের গোষ্ঠীদ্বন্দ্বের জেরে কুদ্দুসকে খুন করা হয়েছে৷ বিজেপি জেলা সাধারণ সম্পাদক সুকুমার রায় দাবি করেছেন এই এলাকায় বিজেপির শক্তি বৃদ্ধিতে বিজেপি কর্মীদের ফাঁসানোর চেষ্টা চালাচ্ছে তৃণমূল কংগ্রেস।

আরও পড়ুন: ১ লক্ষ কোটি টাকা শিক্ষাক্ষেত্রে ব্যয় করবে মোদী সরকার

--
----
--