ব্রিজের নিচে থাকা লোকদের সরানো নিয়ে এক সুর বিজেপি-সিপিএমের গলায়

শেখর দুবে, কলকাতা: মাঝেরহাট ব্রিজ ভেঙ্গে পড়ার পর আবারও টনক নড়েছে রাজ্যের শাসক এবং বিরোধী দলগুলির। শিয়ালদহ, ঢাকুরিয়া সহ শহরের বেশ কয়েকটি ব্রিজের উল্লেখ্য করে বৃহস্পতিবার মুখ্যমন্ত্রী ব্রিজের নীচে ব্যবসা এবং বসবাস করা লোকজনদের সরানোর ইঙ্গিত দিয়েছেন।

সুরক্ষার কারণেই সরানো হতে পারে ব্রিজের নিচে থাকা মানুষজনকে। মুখ্যমন্ত্রীর এই বক্তব্যকে হাতিয়ার করে পাল্টা তোপ দাগলেন বিজেপি এবং সিপিএমের শীর্ষ নেতারা।

পড়ুন: শহরজুড়ে তীব্র যানজট, মাথায় হাত অফিস যাত্রীদের

বিজেপির প্রাক্তন রাজ্য সভাপতি রাহুল সিনহা ব্রিজ ভাঙা নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বক্তব্যের প্রেক্ষিতে বলেন, “ব্রিজের নীচ থেকে লোক সরানোর কথা বলছেন তার মানে উনি জানেন আরও ব্রিজ ভাঙবে। যতই মেট্রোর দোহাই দিন উনি ভালো করেই জানেন রক্ষণাবেক্ষণ নেই তাই ব্রিজ ভাঙার সুযোগ রয়েছে। ব্রিজের নীচের লোকদের সুরক্ষার জন্য অবশ্যই ওদের সরানো দরকার কিন্তু তার আগে ওদের জন্য বিকল্প ব্যবস্থার প্রয়োজন।”

কলকাতার বিভিন্ন ব্রিজের নীচে থাকা মানুষদের সরানোর ব্যাপারে প্রায় একই সুর শোনা গেল সিপিএম নেতা সুজন চক্রবর্তীর গলায়। সুজনবাবু বলেন, “এটাই, মুখ্যমন্ত্রী জানেন আরও ব্রিজ ভাঙবে। প্রচুর চুরি হয়েছে, কাজের কাজ তো কিছুই হয়নি। যদি ব্রিজগুলো ঠিক সময় মেরামত করত তাহলে লোক সরানোর কথা ভাবতে হত না। কিন্তু তা হয়নি। সুরক্ষার স্বার্থে লোক সরানো হলে সরকারি নিয়ম মেনেই তাদের পুর্নবাসন দেওয়া হোক।”

Advertisement
---
-----