মদনের ‘সঙ্গী’ হয়ে তৃণমূলে ‘যোগ’ দিলেন বিজেপির জুলি

বিশ্বজিৎ ঘোষ, কলকাতা: মদন মিত্রর ‘সঙ্গী’ হয়ে তৃণমূল কংগ্রেসে ‘যোগদান’ করলেন রাজ্য বিজেপির নেত্রী জুলি সাহা৷ গত ২১ জুলাই গেরুয়া শিবিরের এই নেত্রী স্বেচ্ছায় ঘাসফুল শিবিরে ‘যোগদান’ করেছেন৷ এবং, এই বিষয়টি সোশ্যাল মিডিয়া, ফেসবুকেও তিনি জানিয়েছেন৷ আর, এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে খোদ তৃণমূল কংগ্রেসের অন্দরের কোনও কোনও অংশে উঠছে এমনই প্রশ্ন, এ ভাবে কেউ কি দলে যোগদান করতে পারেন?

মুকুল-মদনের উপেক্ষায় শহিদ মঞ্চে ‘ভাইপো’র অভিষেক

২০১৫-তে কামারহাটি পুরসভার নির্বাচনে, সেখানকার ২৮ নম্বর ওয়ার্ডে বিজেপির প্রার্থী হয়েছিলেন জুলি সাহা৷ রাজ্য বিজেপির কামারহাটি পূর্ব মণ্ডলের সাধারণ সম্পাদিকার পদে ছিলেন তিনি৷ তবে, গত ২১ জুলাই বিজেপির এই নেত্রী স্বেচ্ছায় তৃণমূল কংগ্রেসে ‘যোগদান’ করেছেন বলে জানিয়েছেন৷ এই বিষয়ে জুলি সাহার বক্তব্য জানতে চেয়ে তাঁর সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়৷ সোশ্যাল মিডিয়ায় তিনি জানিয়েছেন, তা সত্ত্বেও তাঁর কাছে জানতে চাওয়া হয়, আপনি কি তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করেছেন… বিজেপি থেকে…? জুলি সাহা বলেন, ‘‘হ্যাঁ৷’’ তা হলে, আপনি তো এখন তৃণমূল কংগ্রেসের একজন সদস্য? তিনি বলেন, ‘‘হ্যাঁ৷’’

- Advertisement -

ধর্মতলায় শহিদ দিবসের মঞ্চে উঠতে দেওয়া হল না মদন মিত্রকে

একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘আমি বিজেপির কামারহাটি পূর্ব মণ্ডলের সাধারণ সম্পাদিকা ছিলাম৷’’ পুরসভার নির্বাচনে প্রার্থী হয়েছিলেন তো…? জুলি সাহা বলেন, ‘‘২০১৫-তে কাউন্সিলর ইলেকশনে লড়েছিলাম৷ মানুষের প্রতি দাদার কাজ করার সদিচ্ছা ও একাগ্রতা আমাকে অনুপ্রাণিত করে৷

একটা মানুষকে না করে সময়ের পর সময় তিতিবিরক্ত না হয়ে প্রত্যেকের ব্যথা যন্ত্রণা শুনে সমাধান করেন৷ কোনও রং না দেখে৷’’ বিজেপি ছেড়ে কেন তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করলেন…? তাঁর বক্তব্য, ‘‘বললাম যে৷’’ তবে, একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘একটা মানুষ যাকে নিজে সামনে থেকে দেখলাম যে সত্যি সাধারণ মানুষের নেতা কোনও ট্যাগ ছাড়া৷ সর্বোপরি বলব, সিনেমা আর্টিস্ট দেখার জন্য মানুষ ভিড় করে না, মদন মিত্রর সঙ্গে সেলফি তোলার জন্য একটা করমর্দনের জন্য জনতা আবেগপ্রবণ হয়ে পড়ে৷’’

কিন্তু, জুলি সাহা কি বর্তমানে তৃণমূল কংগ্রেসের একজন সদস্য? এই ভাবে ঘোষণার মাধ্যমে কি দলের সদস্যপদ গ্রহণ করা যায়? এই বিষয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের মহাসচিব পার্থ চট্টোপাধ্যায়ের কাছে জানতে চাওয়া হলে, বিষয়টি শুনে তিনি বলেন, ‘‘আমার জানা নেই৷’’ এই বিষয়ে জানতে চেয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের উত্তর ২৪ পরগনা জেলা সভাপতি জ্যোতিপ্রিয় মল্লিকের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করা হয়৷ তবে, বহুবার ফোন কল করা হলেও তিনি ধরেননি৷ যে কারণে, এই বিষয়ে তাঁর কোনও বক্তব্য মেলেনি৷ আর, মদন মিত্র, এই বিষয়ে কী বলছেন কামারহাটির প্রাক্তন এই বিধায়ক? তিনি বলেন, ‘‘২১ জুলাই আমাদের মিছিলে হেঁটেছেন জুলি সাহা৷ তিনি বিজেপির কামারহাটি পূর্ব মণ্ডলের সাধারণ সম্পাদিকা ছিলেন৷ তিনি একা নন৷ ২১ জুলাই আমাদের মিছিলে কামারহাটির বিভিন্ন ওয়ার্ডের বিজেপির নেতৃত্ব স্থানীয় আরও অনেকে হেঁটেছেন৷’’ একই সঙ্গে মদন মিত্র বলেন, ‘‘কামারহাটিতে বিজেপি, সিপিএম, কংগ্রেস থেকে আগামী দিনে অনেকে তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদান করবেন৷’’

ফোন বিভ্রাটে পরিবর্তন মদন মিত্রের

জুলি সাহাকে কি তৃণমূল কংগ্রেসের সদস্যপদ দেওয়া হয়েছে? মদন মিত্র বলেন, ‘‘এখনও দেওয়া হয়নি৷ এই বিষয়ে এখনও আলোচনা হয়নি৷’’ একই সঙ্গে তিনি বলেন, ‘‘বাচ্চা মেয়ে, দলে কাজ করতে চান৷ দল যদি সদস্যপদ দেয়, তা হলে দেবে৷’’ জুলি সাহার বিষয়ে জানতে চাওয়া হয় রাজ্য বিজেপির মুখপাত্র শমিক ভট্টাচার্যর কাছে৷ তৃণমূল কংগ্রেসে তাঁদের এই নেত্রীর যোগদানের বিষয়টি তাঁকে জানানো হয়৷ তিনি বলেন, ‘‘আমার জানা নেই৷’’ তবে, রাজ্য বিজেপির কলকাতা উত্তর শহরতলি জেলার সাধারণ সম্পাদক চণ্ডীচরণ রায় অবশ্য বলেন, ‘‘কামারহাটির পূর্বতন বিধায়কের কাছে ব্যক্তিগত স্বার্থে জুলি সাহা তৃণমূল কংগ্রেসে যোগ দিয়েছেন৷’’ জুলি সাহা কি বিজেপির সদস্যপদ ছেড়ে দিয়েছেন? চণ্ডীচরণ রায় বলেন, ‘‘কামারহাটি পূর্ব মণ্ডলের সাধারণ সম্পাদিকার পদ ছেড়ে দিয়েছেন জুলি সাহা৷’’ কবে পদত্যাগ করলেন? তিনি বলেন, ‘‘তৃণমূল কংগ্রেসে যোগদানের আগে৷’’ যদিও, এই প্রতিবেদন সম্পূর্ণ হওয়া পর্যন্ত ফেসবুকে জুলি সাহার প্রোফাইলে তাঁর ‘পলিটিক্যাল ভিউস’ হিসাবে দেখা গিয়েছে, সেখানে বিজেপি-ই রয়েছে৷

Advertisement ---
---
-----