বাঙালির হাতে তৈরি বিজেপি বাংলার শত্রু হবে? মমতাকে পালটা অমিত শাহ

দেবময় ঘোষ, কলকাতা: ‘বাংলা বিরোধী’ বিজেপিকে মেয়ো রোডের মঞ্চে রক্ষা করলেন এক বাঙালি – শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়৷ সেই সময় (১৯৩৪-৩৮) কলকাতা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাধ্যক্ষ এবং পরবর্তীকালে স্বাধীন ভারতের শিল্প ও সরবরাহ মন্ত্রী শ্যামাপ্রসাদ৷ ১৯৫১ সালে ভারতীয় জনসঙ্ঘের প্রণেতা শ্যামাপ্রসাদ, স্যার আশুতোষ মুখোপাধ্যায় এবং যোগোমায়া দেবীর সুযোগ্য সন্তান৷ বাঙালীর অন্যতম গর্বের এই ব্যক্তিত্বের কথা উল্লেখ্য করে শনিবার বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ শাসকদল জবাব দেওয়ার চেষ্টা করেছেন৷

গত কয়েকদিন ধরেই মেয়ো রোডে অমিতের সভামঞ্চের পাশে ‘বাংলার শত্রু বিজেপি দূর হঠো’ ব্যানারে ঢেকে দিয়েছিল তৃণমূল৷ উদ্দেশ্য, বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি যেন ওই ব্যানার পড়েন৷ বিমানবন্দর থেকে সভামঞ্চের দিকে আসার সময় ওই ব্যানার চোখে পড়েছে অমিতের৷ তবে রাজনৈতিকভাবে বিষয়টির উত্তর দিতে অনেক আগে থেকেই তৈরি হয়ে এসেছেন তিনি৷ অমিত শাহের বক্তব্য, ‘‘দিদি (মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়) বিজেপি কী করে বাংলা বিরোধী হবে? যে দলের প্রতিষ্ঠাতা একজন স্বনামধন্য বাঙালী, তারা বাংলার শত্রু হবে …৷’’

- Advertisement -

শনিবার মেয়ো রোডে বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ যখন বক্তব্য রেখেছেন, তার ঠিক পাশেই ছিল তৃণমূল কংগ্রেসের ফ্লেকস্, ‘বাংলার শত্রু বিজেপি দূর হঠো’৷ কিন্তু সভা শুরু হওয়ার আগেই তা গেরুয়া-সবুজ কাপড়ে ঢেকে দিয়েছিল রাজ্য বিজেপি নেতৃত্ব৷ কিন্তু তা ছিল যথাস্থানেই৷ উঠিয়ে ফেলা হয়নি৷ দলীয় কর্মীদের বৃহস্পতিবার রাতেই অমিত সাফ জানিয়ে দিয়েছেন, ‘Anti Bengal BJP Go Back’ কিংবা ‘বাংলার শত্রু বিজেপি দূর হঠো’ ব্যানারগুলি তাঁর মঞ্চে উঠে বক্তব্য রাখার সময় যেন ওই স্থানেই টাঙানো থাকে৷ কোনও বিজেপি কর্মীরা যেন তৃণমূল কংগ্রেসের ফ্লেকস্ বা ঝন্ডায় হাত না লাগায়৷ বৃহস্পতিবার রাতেই বিজেপি কর্মীদের মধ্যে সর্বভারতীয় সভাপতির নির্দেশ এই প্রচারিত হয়েছে৷

তবে শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায়ের প্রতিষ্ঠা করা সংগঠন এদিনের সভা বিপ্লবী ক্ষুদিরামের নামে সমর্পন করেছে৷ বাংলার সামাজিক জীবনকে ব্যাখ্যা করতে রামকৃষ্ণ, বিবেকানন্দ, রবীন্দ্রনাথ-বঙ্কিম অবং কাজি নজরুলের নাম নিজের বক্তব্যে উল্লেখ করেছেন অমিত শাহ৷ কিন্তু বাংলা বিরোধী তকমা থেকে মুক্তি পেতে জনসঙ্ঘের প্রণেতা, প্রেসিডেন্সি কলেজের সেই কৃতি শ্যামাপ্রসাদ মুখোপাধ্যায় তাঁকে দিয়েছেন৷ নিজের মৃত্যুর ঠিক ৬৮ বছর পর৷ বাঙালির হাতে তৈরি বিজেপি, তারা আবার বাংলার শত্রু হবে কেমন করে? গাল ভরে বলতে পেরেছেন অমিত শাহ৷

Advertisement ---
---
-----