তৃণমূলের বিরুদ্ধে বিজেপির বুকস্টল ভাঙার অভিযোগ কাঁচরাপড়ায়

স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: মুকুল রায়ের খাসতালুকেই ব্যাকফুটে বিজেপি। দুর্গাপুজো উপলক্ষে খোলা বিজেপির বইয়ের স্টল ভেঙে দেওয়ার অভিযোগ উঠল তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে।

চলতি দুর্গাপুজোর মরশুমে ঘটনাটি ঘটেছে উত্তর ২৪ পরগনা জেলার কাঁচরাপাড়া এলাকায়। এই ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বীজপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে বিজেপি।

গত সোমবার ষষ্ঠীর দিন কাঁচরাপাড়ায় জোড়ামন্দির এলাকায় ভারতীয় জনতা পার্টির তফসিলি মোর্চার একটি বুকস্টল উদ্বোধন করা হয়েছিল। বিজেপির বারাকপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি অহীন্দ্রনাথ বসু সহ অন্যান্য নেতৃত্ব সেই উদ্বোধনের অনুষ্ঠানে হাজির ছিলেন।

ষষ্ঠীর সেই উজ্জ্বলতম ছবি ম্লান হয়ে যায় সপ্তমীর সকালে। কারণ ওই বইয়ের স্টল আর নেই। কেউ ভেঙে দিয়ে গিয়েছে। রাতের অন্ধকারের ঘটনায় কে বা কারা হামলা চালিয়েছে তা জানা বা বোঝার উপায় নেই। তবে বিজেপির দাবি তৃণমূল কংগ্রেসের কর্মীরা এই অপকর্ম করেছে।

মঙ্গলবারেই স্থানীয় বীজপুর থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করা হয়েছে ভারতীয় জনতা পার্টির পক্ষ থেকে। তবে ফের সেই স্টল মেরামত করে পসরা সাজিয়ে বসার সাহস দেখায়নি বারাকপুর সাংগঠনিক জেলার বিজেপি নেতৃত্ব। তাঁদের প্রশ্ন, “তৃণমূলের শাসনকালে তফসিলি সম্প্রদায়ের মানুষদের কি দুর্গাপূজাতে একটা বুকস্টল খোলারও অধিকার নেই?”

যদিও যাবতীয় অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছে কাঁচরাপাড়া এলাকার তৃণমূল নেতৃত্ব। সমগ্র ঘটনার জন্য বিজেপির দলীয় কোন্দলকেই কাঠগড়ায় তুলেছে ঘাসফুল শিবির।

উল্লেখযোগ্য বিষয় হচ্ছে, এই কাঁচরাপাড়া রাংলার বিশিষ্ট রাজনীতিবিদ মুকুল রায়ের খাসতালুক। গত ১১ মাস সময় ধরে তিনি বিজেপি। এই মুহূর্তে তাঁর উপরে দলের গুরুত্বপূর্ণ একাধিক দায়িত্ব রয়েছে। সেই মুকুলের এলাকায় একটা বইয়ের স্টল খুলতে পারল না বিজেপি। বীজপুর বিধানসভার তৃণমূল কংগ্রেস বিধায়ক মুকুলপুত্র শুভ্রাংশু রায় অবশ্য এই বিষয়ে কোনও মন্তব্য করেননি।

----
-----