বিজেপির মনোনীত প্রধানকে অপহরণে অভিযুক্ত তৃণমূল

দেবনাথ মাইতি, মেদিনীপুর: পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনের আগে বিজেপির মনোনীত প্রধানকে অপহরণের অভিযোগ উঠল শাসকদলের বিরুদ্ধে। ঘটনাটি ঘটেছে পশ্চিম মেদিনীপুরের গড়বেতা-২ ব্লক৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, সেখানকার পাথরপাড়া-৪ গ্রাম পঞ্চায়েতে সোমবার বোর্ড গঠনের দিন ছিল৷ কিন্তু বিকেল চারটের সময় শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত বোর্ড গঠন করা যায়নি৷

আরও পড়ুন: চোকসিকে গ্রেফতার করার জন্য প্রয়োজন নেই ইন্টারপোল নোটিশের

- Advertisement -

ফলে ওই গ্রাম পঞ্চায়েত কার্যালয় চত্বরে ব্যাপক উত্তেজনা ছড়ায়৷ বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন বিজেপির কর্মী-সমর্থকরা৷ তবে তৃণমূলের তরফে বিজেপির তোলা অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে৷ পরিস্থিতি কীভাবে সামাল দেওয়া হবে, তা নিয়ে প্রশাসনের তরফেও কারও কোনও বক্তব্য পাওয়া যায়নি৷

স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, ওই গ্রাম পঞ্চায়েতে মোট আসনের সংখ্যা ১০টি আসন৷ তৃণমূল পাঁচটিতে, বিজেপি চারটিতে জয় লাভ করে৷ একটি আসন যায় নির্দলের দখলে৷ কিন্তু বোর্ড গঠনের কয়েকদিন আগে আচমকা পরিস্থিতির বদল ঘটে৷ তৃণমূলের মধ্যে দ্বন্দ্ব তৈরি হয়৷ দু’জন সদস্য দল ছাড়েন৷ বিজেপিতে যোগদান করেন৷ ফলে ওই পঞ্চায়েতে বিজেপি সংখ্যাগরিষ্ঠ হয়৷ তার পরই রুমা মান্নাকে প্রধান পদে মনোনীত করা হয়৷

আরও পড়ুন: মমতার বাড়িতে বিজেপির আমন্ত্রণপত্র

অন্যদিকে গড়বেতা-৩ ব্লকের নয়াবসত গ্রাম পঞ্চায়েতে অনেক চেষ্টা করেও বোর্ড গঠন করতে পারল না বিজেপি৷ ওই গ্রাম পঞ্চায়েতের আসন সংখ্যা ১২৷ তার মধ্যে তৃণমূল ৭, বিজেপি ৫টি আসনে জেতে৷ সংখ্যাত্ত্বের বিচারে তৃণমূল এগিয়ে ছিল৷ কিন্তু বিজেপি শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত গরিষ্ঠতা আদায় করার চেষ্টা করে৷ শেষে দেখা যায় ভোটাভুটি হবে৷

তবে এর পর আর তৃণমূলের সঙ্গে লড়াই করতে পারেনি বিজেপি৷ তাদের হার স্বীকার করতে হয়৷ ওই পঞ্চায়েতে প্রধান হলেন তৃণমূল কংগ্রেসের অনিমা হাজরা। উপপ্রধান হলেন শাসক দলের শুকদেব ভান্ডারি।

আরও পড়ুন: ১লা ডিসেম্বর থেকে বাণিজ্যিকভাবে উড়বে ড্রোন

Advertisement
---