মোদী-রাহুলের দঙ্গলে মূল নজর দুই শিবিরের আসন প্রাপ্তি

গান্ধীনগর: সোমবার গুজরাত ও হিমাচল প্রদেশের বিধানসভা নির্বাচনের ভোট গণনা৷ তবে যাবতীয় উদ্দীপনা ও উত্তেজনার কেন্দ্রে মোদীর রাজ্য৷ সকাল থেকে টিভির পর্দায় নজর সব রাজনৈতিক দলের৷ কেননা গুজরাতের ফল বিজেপির পক্ষে গেলে নিঃসন্দেহে বড় ধাক্কা খাবে বিরোধী শিবির৷ অন্যদিকে সুফলের জেরে নিজেদের শক্তি বাড়িয়ে আরও অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠবেন নরেন্দ্র মোদী৷

ইতিমধ্যেই একাধিক সংবাদ মাধ্যমের এক্সিট পোল বলছে দুই রাজ্যে এগিয়ে বিজেপি৷ তবে গেরুয়া শিবিরের উদ্বেগ কেবল আসন প্রাপ্তিকে নিয়ে৷ বেশিরভাগ বুথ ফেরত সমীক্ষায় আভাস পাওয়া গিয়েছে গুজরাতে বিজেপির আসন সংখ্যা এবার কমতে চলেছে৷ অন্যদিকে গতবারের চেয়ে আসন বাড়তে পারে কংগ্রেসের৷ যা নিঃসন্দেহে বড় প্রাপ্তি হতে চলেছে রাহুল গান্ধীর কাছে৷

১৮২টি আসন বিশিষ্ট গুজরাত বিধানসভায় ২০১২ সালে ১১৫টি আসনে জয়ী হয়েছিল বিজেপি৷ কংগ্রেসের ঝুলিতে যায় ৬১টি আসন৷ গুজরাত পরিবর্তন পার্টি ও ন্যাশনালিষ্ট কংগ্রেস পার্টি মোট ২টি করে আসন পায়৷ জনতা দল ও অন্যান্যদের একটি করে আসন প্রাপ্তি ঘটে৷ এবারের নির্বাচনে শুরু থেকেই উন্নয়নের তাস খেলেছে বিজেপি৷ প্রচারে বেরিয়ে উন্নয়নের ছবি তুলে ধরেছেন মোদী৷

- Advertisement -

নির্বাচনের বাদ্যি বাজার পর বিজেপি শিবির থেকে দাবি করা হয় এবার তারা ১৪০টির কাছাকাছি আসনে জয়ী হবে৷ বুথ ফেরত সমীক্ষাগুলিতেও বিজেপির এই দাবি প্রতিফলিত হয়েছিল৷ কংগ্রেসকে খুব কম সংখ্যক আসনে এগিয়ে রাখা হয়েছিল৷ কিন্তু ভোটের দিন যত এগিয়ে আসতে থাকে ততই চিত্রটা যেন পাল্টাতে শুরু করে৷ বিজেপি ও কংগ্রেসের মধ্যে প্রাপ্ত আসনের ব্যবধান শেষের দিকে বুথ ফেরত সমীক্ষাগুলিতে অনেক কমে এসেছে৷৷ এতেই কপালে চিন্তার ভাঁজ পড়েছে অমিত শাহের৷ যদিও বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতির দাবি, নিরঙ্কুশ জয়ের পথে যাচ্ছে দল৷

খুব বড় অঘটন না ঘটলে রাজনৈতিক পর্যবেক্ষকদের মতে গুজরাতে পঞ্চম বারের জন্যে ক্ষমতায় আসতে চলেছে বিজেপি৷ কিন্তু এবারের নির্বাচনের আসল ফ্যাক্টর কোন দলের ঝুলিতে কত আসন গেল তার উপর৷ বিজেপি যদি গতবারের চেয়ে তাদের আসন সংখ্যা বাড়িয়ে নিতে পারে তাহলেই কেল্লা ফতে৷

গতবারের চেয়ে যদি কংগ্রেসের আসন কমে যায় তাহলে সেটা রাহুলের কাছে বড় হার হবে৷ কেননা নির্বাচনের আগে মোদীর গড়ে মাটি কামড়ে পড়েছিলেন তিনি৷ উল্টোদিকে বিজেপির যদি আসন সংখ্যা গতবারের চেয়ে বেড়ে যায় তাহলে ২০১৯ লোকসভা নির্বাচনের আগে বাড়তি মনোবল পাবে তারা৷ কিন্তু বিজেপির আসন সংখ্যা কমে গেলে সেটাই হবে রাহুলের সবচেয়ে বড় জয়৷ এতে উজ্জীবিত হবে কংগ্রেস৷

Advertisement
---