ইদ আবহেই ‘শত্রু’ শিবিরে পাকাপাকি যাচ্ছেন শত্রুঘ্ন

পাটনা:  ইদের পরেই দল বদলে লালু শিবিরে যাচ্ছেন শত্রুঘ্ন সিনহা৷ বিহারি বাবুকে দল থেকে বহিষ্কারের সিদ্ধান্ত নিয়েই নিয়েছে বিজেপি৷ সূত্রের খবর, পাটনা সাহিব কেন্দ্র থেকেই শত্রুঘ্ন সিনহা লড়াই করবেন৷ তাঁকে টিকিট দিচ্ছে আরজেডি৷

অবশেষে রাজনৈতিক জীবনে চরমতম সিদ্ধান্তের পথেই বর্ষীয়ান বিজেপি নেতা তথা চরম মোদী বিরোধী মুখ হিসেবে সুপরিচিত শত্রুঘ্ন সিনহা৷ তিনি যে দল ছাড়তে চলেছেন তার ইঙ্গিত আগেই মিলছিল৷ বিশেষ সূত্রে কলকাতা ২৪x৭-এর কাছে যা খবর এসেছে, তাতে ইদের পরেই রাষ্ট্রীয় জনতা দলে নাম লেখাতে চলেছেন শত্রুঘ্ন৷

শুক্রবার দেশজুড়ে ইদ উৎসবের চূড়ান্ত প্রস্তুতির মধ্যেই বিহারের রাজনীতিতে ছড়িয়ে পড়ে শত্রুঘ্ন শেষ পর্যন্ত শত্রু শিবিরেই যোগ দিতে মনস্থির করে নিয়েছেন৷ উৎসব উপলক্ষে আরজেডির ইফতারের অংশ নিয়েই বিতর্ক আরও বাড়িয়ে দিয়েছিলেন তিনি৷ এদিন আরজেডি-র পাটনা নেতৃত্বের কয়েকজন নাম না প্রকাশ করার শর্তে জানান, অব জ্যায়াদা দের নেহি, শত্রুঘ্ন জি হমারে দল মে জলদ হি সামিল হোঙ্গে (বেশি দেরি নেই, শত্রুঘ্নজি অতি দ্রুত আমাদের জলে সামিল হচ্ছেন)৷

- Advertisement -

বুধবার আরজেডি ইফতারের আয়োজন করে৷ সেখানে উপস্থিত শত্রুঘ্ন সিনহাকে সরাসরি দলে সামিল হতে আহ্বান জানান লালু কন্যা মিসা ভারতী৷ তিনি বলেন, আর দেরি কেন এবার চলেই আসুন৷ সকলে মিলে একসঙ্গে বিজেপি ও ধর্মান্ধ শক্তিকে হটাতে লড়াই করি৷ এর পরেই তিনি পাটনা সাহিব কেন্দ্র থেকেই শত্রুঘ্ন সিনহাকে দাঁড় করাতে আগ্রহী হন৷ জানা গিয়েছে, আরজেডি সুপ্রিমো তথা লালু প্রসাদ যাদবের এতে কোনও আপত্তি নেই৷ তেমনই আপত্তি নেই তেজস্বী ও তেজপ্রতাপ যাদবেরও৷ পশুখাদ্য কেলেঙ্কারি মামলায় জেলে যাওয়া লালু প্রসাদ যাদবকে দেখতে হাসপাতালে গিয়েছিলেন শত্রুঘ্ন৷ তারপরেই ছড়াতে থাকে তাঁর আরজেডি-তে যোগ দেওয়ার বিষয়৷

শত্রুঘ্ন সিনহার বারবার মোদী সমালোচনা ও মন্তব্য ঘিরে পাটনার রাজনৈতিক মহল ও দিল্লির রাজনীতি আগেই উত্তপ্ত হয়েছে৷ প্রবীণ বিজেপি হেভিওয়েট নেতা তথা প্রাক্তন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী যশবন্ত সিনহা দল ছেড়েছেন৷ তাঁর ক্ষোভ গিয়ে পড়েছে মোদীর নেতৃত্বে চলা বিজেপির রাজনৈতিক লাইনের উপরে৷

Advertisement ---
---
-----