পুলিশের গুলিতে ‘নিহত’ দুই কর্মী, কলকাতায় বড় আন্দোলনে বিজেপি

শেখর দুবে, কলকাতা: নিজেদের অনুকূলে শীর্ষ আদালতের রায় পেয়ে জেলায় জেলায় খালি পড়ে থাকা পঞ্চায়েত বোর্ডগুলি গঠন করা শুরু করেছে তৃণমূল৷ গত শুক্রবার পঞ্চায়েত মামলার রায় দেয় সুপ্রিম কোর্ট৷

পঞ্চায়েত নির্বাচনের পরে বোর্ড গঠন ঘিরে বেশ কয়েকটি জেলা বিশেষ করে পুরুলিয়া, ঝাড়গ্রামে শুরু হয় শাসক-বিরোধী সংঘর্ষ৷ অভিযোগ, মঙ্গলবার পুরুলিয়ার জয়পুরের ঘাগরাতে পুলিশের গুলিতে মৃত্যু হয়েছে দুই বিজেপি কর্মী৷ সূত্রের খবর, এই ঘটনার প্রতিবাদে সেপ্টেম্বরের প্রথম সপ্তাহে কলকাতা জুড়ে আন্দোলনে নামছে বিজেপি৷

এই বিষয়ে বিজেপির রাজ্যস্তরের শীর্ষ নেতা জানিয়েছেন, ‘‘ডেট এখনও ফাইনাল হয়নি৷ তবে পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠন নিয়ে রাজ্য জুড়ে শাসক দলের গুণ্ডামি ও অত্যাচারের প্রতিবাদে আমরা শীঘ্রই কলকাতা জুড়ে আন্দোলন করব৷ পুরো বিষয়টি এখনও আলোচনার স্তরে রয়েছে৷’’ জানা গিয়েছে, এই আন্দোলনের গুরুদায়িত্ব থাকবে বিজেপি যুব মোর্চার কাঁধে৷

- Advertisement -

মঙ্গলবার পুরুলিয়ার জয়পুরের ঘাগরাতে পঞ্চায়েতের বোর্ড গঠনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ বাধে৷ বিজেপির বিজয়ী পঞ্চায়েত প্রধান পদপ্রার্থী অদিত মণ্ডলের এস.সি সার্টিফিকেট গ্রহণ করতে অসম্মত হন পুলিশ এবং পুরুলিয়া জেলা আধিকারিকরা৷ ঝামেলার সূত্রপাত এখানেই৷ বিষয়টি নিয়ে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন বিজেপি কর্মী-সমর্থকরা৷ এরপর ভিড় হঠাতে পুলিশ গুলি চালায় বলে অভিযোগ৷ ঘটনায় গুলি লেগে মৃত্যু হয় বিজেপি সমর্থক নিরঞ্জন গোপ ও দামোদর মন্ডলের৷

Advertisement ---
---
-----