মমতার বিরুদ্ধে সংসার ভাঙার বিস্ফোরক অভিযোগ জয়ের

স্টাফ রিপোর্টার, উলুবেড়িয়া: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে বিস্ফোরক অভিযোগ করলেন বিজেপি নেতা জয় বন্দ্যোপাধ্যায়৷ তাঁর অভিযোগ, ‘‘মমতা আমার সংসার ভেঙেছে৷’’

বৃহস্পতিবার এককালের টলিউড কাঁপানো এই নেতা হাজির হয়েছিলেন হাওড়ার উলুবেড়িয়া আদালতে৷ সেখানে পুলিশের দায়ের করা একটি মামলার প্রেক্ষিতে আদালত তাঁকে হাজিরা দেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিল৷ সেই হাজিরা দেওয়ার পর তিনি সংবাদমাধ্যমের সামনে এই বিস্ফোরক অভিযোগ করেন৷

এদিন তিনি সরাসরি জানান, বিরোধীপক্ষে থাকাকালীন তিনি একাধিকবার তৃণমূল নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে দেখা করেছেন৷ কিন্তু মুখ্যমন্ত্রী হওয়ার পর মমতার কাজ আশানুরূপ না হওয়ায় তিনি সরে আসেন তৃণমূল থেকে৷ পরে নরেন্দ্র মোদীর আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে বিজেপিতে যোগ দেন৷ ভোটেও লড়েন৷ তাঁর অভিযোগ, সেই সময় থেকেই তাঁকে পারিবারিকভাবে আক্রমণ করেছেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়৷ আর তার জেরেই তাঁর সংসার ভেঙেছে বলে তিনি দাবি করেন৷

- Advertisement -

উল্লেখ্য, জয় বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রাক্তন স্ত্রী অনন্যা চট্টোপাধ্যায় এখন কলকাতা পুরসভার তৃণমূল কাউন্সিলর৷ তবে সংসার ভাঙার অভিযোগেই থেমে থাকেননি জয়৷ পাশাপাশি তাঁর দাবি, ‘‘মমতা আমার জীবন থেকে অভিনয় কেড়ে নিয়েছে৷

একই সঙ্গে পঞ্চায়েত ভোটের আগে তাঁকে হেনস্তা করার অভিযোগও তুলেছেন বিজেপির রাজ্যস্তরের এই নেতা৷ তাঁর দাবি, ২০১৬ সালের ১৭ জানুয়ারি ধর্ষণের অভিযোগ ঘিরে দলের কর্মীদের সঙ্গে তিনি আমতা থানায় প্রতিবাদ সভা করতে আসেন৷ সেখান থেকে শ্যামপুর থানায় ডেপুটেশন দিতে যাচ্ছিলেন৷ পথে তাঁকে দুই সিভিক ভলান্টিয়ার মারধর করে৷ এতে তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েন৷ পরে সুস্থ হয়ে আবার শ্যামপুর থানায় যান৷ তখন থানার তরফে তাঁর কাছে ক্ষমা চাওয়া হয়৷ তাই তিনি কোনও অভিযোগ দায়ের করেননি৷

কিন্তু ১০-১২ দিন আগে তিনি জানতে পেরেছেন ওই ঘটনায় তাঁর বিরুদ্ধে থানা ভাঙচুর-সহ একাধিক অভিযোগে বিভিন্ন ধারায় মামলা হয়েছে৷ সেই কারণেই উলুবেড়িয়া আদালত তাঁকে হাজিরা দিয়ে জামিন নিতে বলেন৷ সেই মতো বৃহস্পতিবার তিনি উলুবেড়িয়া আদালতে হাজিরা দিয়ে জামিন নেন৷

Advertisement ---
---
-----