স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: সমগ্র রাজ্যসহ কলকাতা ও তার পার্শ্ববর্তী অঞ্চলে ডেঙ্গু যে মহামারির আকার ধারণ করেছে তা নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আবারও কাঠগড়ায় তুললেন বিজেপি-র রাজ্যসভার সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়৷

ডেঙ্গু নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী ও স্বাস্থ্য দফতরের দেওয়া রেকর্ডকে হাতিয়ার করে রূপার তোপ ‘ডেঙ্গু নিয়ে মিথ্যাচারের প্রয়োজন কি আছে৷’ এছাড়া শহর কলকাতা সহ রাজ্যের বিভিন্ন এলাকায় জলাভূমি বুজিয়ে দিয়ে সিন্ডিকেট রাজ চালানো নিয়েও সরব হয়েছেন বিজেপি নেত্রী৷

বৃহস্পতিবার দক্ষিণ কলকাতার বিখ্যাত সাউথ সিটি মলের সামনে থেকে লর্ডসের মোড় পর্যন্ত একটি বিক্ষোভ মিছিলে অংশ নিয়েছিলেন সাংসদ রূপা গঙ্গোপাধ্যায়৷ মিছিলের উদ্দেশ্য ছিল, বিক্রমগড় ঝিলকে রক্ষা করার দাবি৷

তবে এই বিক্রমগড় ঝিলকে নিয়ে সমস্যা আজকের নয়৷ বহুদিন থেকেই এই ঝিলকে নিয়ে লড়াই চলছে শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের দুই কাউন্সিলর রতন দে ও তপন দাশগুপ্তের মধ্যে৷ কলকাতা কর্পোরেশনের ৯৩ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর, তথা মেয়র পারিষদ (রাস্তা) হলেন রতন দে এবং ৯৫ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর তথা ১০ নম্বর বোরোর চেয়ারম্যান হলেন তপন দাশগুপ্ত৷ বিক্রমগড় ঝিলটি এই দুই ওয়ার্ডের মধ্যেই পড়ছে৷ এই ইস্যুতেই সরব হয়েছেন রূপা গঙ্গোপাধ্যায়৷ তাঁর অভিযোগ, ঝিলটিতে ইচ্ছাকৃত ভাবে জঞ্জাল ফেলে ভরাট করার চেষ্টা চালাচ্ছে একদল সিন্ডিকেট ব্যবসায়ী৷

এখানেই শেষ নয়, স্বচ্ছ ভারত অভিযানে কেন্দ্র যে টাকা পাঠাচ্ছে কেন্দ্রে, তা সঠিক ভাবে ব্যবহার করছে না রাজ্য সরকার৷ এমন অভিযোগ তুলে রাজ্যর বিরুদ্ধে তোপ দাগেন রূপা গঙ্গোপাধ্যায়৷ মিছিলে উপস্থিত কলকাতা কর্পোরেশনের ৮৬ নম্বর ওয়ার্ডের বিজেপি কাউন্সিলর তিস্তা বিশ্বাস দাস পুরসভার বিরুদ্ধে ঘোরতর অভিযোগ আনেন৷ তিনি জানিয়েছেন, ওয়ার্ডে কাজের জন্য পুরসভা থেকে কোনও সাহায্য করা হচ্ছে না৷ সেই কথা বলতে গেলে বরং বিরোধীদের আওয়াজ দমানোর চেষ্টা হচ্ছে বলেও অভিযোগ করেছেন তিনি৷

--
----
--