স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: কলকাতা হাই কোর্টের প্রধান বিচারপতির রায়ে বন্ধ হয়ে গেল বিজেপির রথ যাত্রা৷ এই রায় মেনে নিতে পারছে না বিজেপি নেতৃত্ব৷ তাই তারা সুপ্রিম কোর্টে যাওয়ার কথা ভাবতে শুরু করেছে৷

এই বিষয়ে তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায় বলেন, ‘‘হাইকোর্টের রায় মেনে বিজেপির রথ যাত্রা কর্মসূচি বন্ধ করে দেওয়া উচিত৷ এরপরও যদি ওরা হাইকোর্টকে চ্যালেঞ্জ করে রথ যাত্রা কর্মসূচি পালন করে, তবে হাইকোর্টের উচিত ওদের বিরুদ্ধে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করা৷’’

Advertisement

উত্তর ২৪ পরগণার পানিহাটি শহরে সংহতি মিছিল করেন দমদম কেন্দ্রের তৃণমূল সাংসদ সৌগত রায়। এই সংহতি মিছিলের নেতৃত্বে ছিলেন সাংসদ সৌগত রায় সহ বিধানসভার মুখ্য সচেতক তথা পানিহাটির তৃণমূল বিধায়ক নির্মল ঘোষ ও নৈহাটির বিধায়ক পার্থ ভৌমিক।

পানিহাটি লোকসংস্কৃতি ভবন থেকে শুরু হয়ে শহর পরিক্রমা করে তৃণমূল কংগ্রেসের এই সংহতি পদযাত্রা। প্রায় দুই হাজার পুরুষ ও মহিলা কর্মী সমর্থক এই পদযাত্রায় অংশ গ্রহণ করে। তৃণমূল কংগ্রেসের এই সংহতি পদযাত্রার শ্লোগান ছিল ‘বাংলায় রথ যাত্রার নামে বাংলাকে অশান্ত করা যাবে না৷’

দমদম কেন্দ্রের তৃণমূল কংগ্রেস সাংসদ সৌগত রায় এদিন হাইকোর্টের রায়কে সম্মান জানিয়েছেন৷ তিনি বলেন, ‘‘বিজেপির রথ যাত্রার বিরুদ্ধে যে রায় মহামান্য হাই কোর্ট দিয়েছে তাকে সম্মান জানিয়ে বিজেপির এই রথ যাত্রার কর্মসূচি থেকে সরে আসা উচিত৷ ওদের রথযাত্রা বন্ধ করা উচিত।”

সংবিধান অনুযায়ী আদালতের রায়ের বিরুদ্ধে যাওয়ার ক্ষমতা কারও নেই। এই অবস্থায় বিজেপি কী সিদ্ধান্ত নেবে সেটা পদ্ম শিবিরের অভ্যন্তরীণ বিষয় বলে মন্তব্য করেছেন দমদমের সাংসদ। তাঁর কথায়, “ওরা ওদের দলীয় কর্মসূচি পালন করবে কি করবে না, সেটা ওদের সিদ্ধান্ত। ওরা রথযাত্রা করলে আমরা সেই রথ যাত্রা হয়ে যাওয়ার পর সেই পথকে পবিত্র করে দেব৷ এটা আমাদের দলীয় কর্মসূচি। মহামান্য হাইকোর্ট যে রায় দিয়েছে তা নিয়ে ওরা সিদ্ধান্ত নিক কি করবে।”

ভারতবর্ষে যারা বাবরি মসজিদ ভেঙে ছিলেন, তাদের বিরুদ্ধে সবাকে জোটবদ্ধ হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন সাংসদ সৌগত রায়।

----
--