শ্রীনগর: জম্মু কাশ্মীরের পঞ্চায়েত ভোটে ন্যাশনাল কনফারেন্স বা এনসি-র অংশ না নেওয়ার সিদ্ধান্তের কড়া সমালোচনা করল বিজেপি৷ রবিবার দলের সাধারণ সম্পাদক রাম মাধব বলেন সস্তার রাজনীতি করছেন এনসির সভাপতি ফারুক আবদুল্লা৷

তিনি বলেন ভোট নিয়েও রাজনীতি করছে ফারুক আবদুল্লার দল৷ নিজের রাজ্যের মানুষ যাতে গণতান্ত্রিক উপায়ে নিজেদের প্রতিনিধি বেছে নিতে পারেন, সেই রাস্তায় হাঁটতে চাইছে না ন্যাশনাল কনফারেন্স৷ ফারুক আবদুল্লার সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা করে এদিন রাম মাধব বলেন এই কাশ্মীরি নেতা চান না তাঁরই রাজ্যের মানুষ নিজের গণতান্ত্রিক অধিকার প্রয়োগ করুক৷

Advertisement

রাম মাধবের মতে যেখানে মোদী সরকার গোটা দেশে সুষ্ঠু গণতান্ত্রিক পরিবেশ বজায় রাখার চেষ্টা চালাচ্ছে, সেখানে ফারুক আবদুল্লার মতো কিছু নেতা সেই উদ্যোগকে বানচাল করার চেষ্টায় রয়েছেন৷ বিজেপি চায় সুষ্ঠু ভাবে উপত্যকার মানুষ এই পঞ্চায়েত নির্বাচনে অংশ নিন৷ কিন্তু বিরোধীরা তা হতে দিচ্ছেন না বলে অভিযোগ করেন বিজেপির এই সাধারণ সম্পাদক৷

প্রসঙ্গত, প্রশাসনের তরফ থেকে আগে জানানো হয়েছিল, চলতি বছরের নভেম্বর-ডিসেম্বর মাসে পঞ্চায়েত নির্বাচন হবে জম্মু ও কাশ্মীরে অন্যদিকে অক্টোবর মাসে পৌরসভাগুলিতে নির্বাচন হবে উপত্যকায়।

এই নির্বাচনের পাশাপাশি, রাজ্যের বিধানসভা নির্বাচন ও লোকসভা নির্বাচনও বয়কট করার হুমকি দিয়েছেন ফারুক আবদুল্লা৷ সংবিধানের ৩৫-এ ধারা নিয়ে নিজেদের অবস্থান যতদিন না কেন্দ্র স্পষ্ট করবে, ততদিন এই নির্বাচন বয়কট চালাবে ন্যাশনাল কনফারেন্স বলে জানানো হয়েছে৷

ফারুক আবদুল্লা আগে জানান এই ধারাকে রক্ষা নিশ্চিত না করা পর্যন্ত ভোট বয়কট করা হবে৷ জম্মু ও কাশ্মীরের এই প্রাক্তন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ৩৫-এ ধারা রক্ষার্থে যথাযথ ব্যবস্থা প্রশাসনকে নিতে হবে। এই ধারার ওপর কোনও রকমের আঘাত হানা হলে তা রাজ্য এবং দেশের জন্য নেতিবাচক পরিস্থিতি তৈরি করবে৷ তাই দলের মূল কমিটি এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে জানিয়ে ছিলেন তিনি৷

ফারুকের অভিযোগ ৩৫-এ ধারাকে শেষ করে দেওয়ার জন্য চেষ্টা চালানো হচ্ছে। সেই বিষয়ে কোনও ব্যবস্থা না নিয়ে প্রশাসন তাড়াহুড়ো করে রাজ্যের পৌরসভা এবং পঞ্চায়েত নির্বাচন আয়োজন করছে।

----
--