বাইচুংয়ের জন্য ফাঁকা গোল বিজেপি’র

স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা : বাইচুং ভুটিয়া যদি বিজেপি’তে আসতে চান তবে তিনি স্বাগত ৷ জানিয়েছেন, বিজেপি’র অন্যতম জাতীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা ৷ প্রসঙ্গত, সোমবারই টুইট করে নিজেকে তৃণমূল কংগ্রেস থেকে সরিয়ে নিয়েছেন ভারতীয় ফুটবলের ‘পাহাড়ি বিছে’ ৷ কলকাতায় এরপরই রাজনৈতিক জল্পনা শুরু হয়েছে – তবে কী বিজেপির পথেই বাইচুং ? সন্ধ্যা পর্যন্ত বিষয়টি নিয়ে বাইচুংয়ের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি ৷
তবে বাইচুংকে দলে নিতে বিকেলেই দরজা খুলে দিয়েছেন রাহুলবাবু ৷ বিজেপি’র জাতীয় সম্পাদকের বক্তব্য, তৃণমূলে মান-সম্মান নিয়ে কেউ থাকতে পারেন না ৷ দলটায় কালীঘাটতন্ত্র চলে ৷ এই অবস্থায় যদি কেউ বেরিয়ে আসেন, তবে ঠিকই করেছেন ৷ ‘বাইচুং ভুটিয়া যদি বিজেপি’তে আসতে চান তবে তিনি স্বাগত ৷’
তৃণমূলের টিকিটে দুইবার লোকসভা এবং বিধানসভা নির্বাচনে লড়ে শুধু পরাজয়ই দেখেছেন একদা ভারতের অধিনায়ক ময়দানের তারকা, ইস্টবেঙ্গল-মোহনবাগানের নয়নের মণি বাইচুং ৷ ২০১৪ সালে দার্জিলিং লোকসভা কেন্দ্র থেকে বিজেপি প্রার্থী সুরেন্দ্রজিৎ সিং আহলুওয়ালিয়ার কাছে হেরেছিলেন বাইচুং ৷ ওই ভোটের আগেই গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সমর্থন আদায় করেছিল বিজেপি ৷
২০১৬ সালের বিধানসভা নির্বাচনে শিলিগুড়ি কেন্দ্র থেকে নির্বাচনে দাঁড়িয়ে সিপিএম প্রার্থী এবং রাজ্যের প্রাক্তণ নগরোন্নয়ন মন্ত্রী অশোক ভট্টাচার্যের কাছে হেরে যান তিনি ৷ স্বভাবতই উপর্যুপরি হার – খেলার ময়দানে যা তিনি কখোনই দেখেননি – তাঁকে তৃণমূল কংগ্রেস থেকে বেশ কিছুটা দূরে সরিয়ে দেয় ৷ কালীঘাটের খবর, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও তাঁর ওপর থেকে আগ্রহ হারান ৷
এরপর নিজের সুপরিচিত খেলার জগৎ নিয়েই ব্যস্ত ছিলেন একদা ময়দানের পাহাড়ি বিছে ৷ খেলার ধারাভাষ্য, আই এস এল – এ  এটিকে-এর দল নির্বাচনেও বাইচুংকে অগ্রণী ভূমিকা নিতে দেখা গিয়েছিল ৷ কিন্তু রাজনীতি থেকে দূরে থাকলেও তৃণমূলের সঙ্গে তাঁকে বিশেষ দেখা যায়নি ৷ ২০১৭ তে বাইচুংয়ের একটি মন্তব্যে চমকে যায় মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশাসন ৷ স্পষ্ট ভাষায় বাইচুং জানান, গোর্খাল্যান্ডের দাবি সঠিক ৷ বাংলার ক্লাবগুলির হয়ে বছরের পর বছর খেলা বাইচুং যে এই কথা বলবেন, তা অনেকেই আশা করেননি ৷ তখন থেকেই, তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গে তাঁর দূরত্ব বাড়তে থাকে ৷
এদিকে, গোর্খা জনমুক্তি মোর্চার সঙ্গে বিজেপির সম্পর্ক ঠিক কোন পর্যায়ে তা এখন পরিষ্কার নয় ৷ সুরেন্দ্রজিৎ সিং আহলুওয়ালিয়া ২০১৯ সালের লোকসভায় আবার লড়তে আসবেন, সে বিষয়েও কেনও নিশ্চয়তা নেই ৷ সোমবার সন্ধ্যা দুটি রাজনৈতিক জল্পনা তুঙ্গে ৷ এক ,  দার্জিলিংয়ে পাহাড়ি বিছেকেই নির্বাচনে ‘পাহাড়ি মুখ’ করতে চলেছে বিজেপি ৷ অন্য মত বলছে, অন্য রাজ্য থেকে রাজ্যসভার সাংসদ হবেন বাইচুং ৷ জাতীয় সম্পাদক রাহুল সিনহা বলছেন, রাজ্যসভার ব্যাপারে দলের কেন্দ্রীয় নেতৃত্ব সিন্ধান্ত নেবে ৷
Advertisement
---