দলবদলের হিড়িক বাঁকুড়ায়

স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: একদল বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগদান করছেন৷ আবার উল্টোটাও হচ্ছে৷ বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলেই ‘নিরাপদ’ মনে করছেন কেউ কেউ৷ পঞ্চায়েত ভোটের পর বাঁকুড়ার বিভিন্ন জায়গায় দেখা যাচ্ছে এই ছবি৷

তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দিলেন শতাধিক সংখ্যালঘু ও যুব তৃণমূল কর্মী৷ বাঁকুড়া বিজেপির বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা কমিটির সভাপতি স্বপন ঘোষ দাবি করেন, শাসকদলের অত্যাচারে অতিষ্ঠ হয়েই তৃণমূলকর্মীরা বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন৷

বাঁকুড়ার পাত্রসায়র ব্লকের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে বেশ কিছু তৃণমূল কর্মী বিজেপিতে যোগ দেন৷ দলের বিষ্ণুপুর জেলা কার্যালয়ে সভাপতি স্বপন ঘোষ নবাগতদের হাতে বিজেপির পতাকা তুলে দেন৷ স্বপন ঘোষ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন জেলা পর্যবেক্ষক পার্থসারথি কুণ্ডু, পালক পবন সিং, তাপস বোস, অমর শাখা, অশোক ডাকুয়া প্রমুখ৷ তৃণমূল অবশ্য ‘এরকম কিছু জানা নেই’ বলে প্রসঙ্গ এড়িয়ে গিয়েছেন৷

- Advertisement -

অন্যদিকে, বাঁকুড়ার বিষ্ণুপুরের ইন্দাসেই আকুই গ্রামপঞ্চায়েতের মান্দরা গ্রামে বিজেপির অঞ্চল সভাপতি-সহ বেশ কয়েকজন তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন৷ স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্ব সেই দাবিই করেছেন৷ বিজেপির আকুই অঞ্চল সভাপতি বাপন রায়-সহ বেশ কিছু সমর্থক রবিবারই দল ছাড়েন বলে তৃণমূল সূত্রে খবর৷

ইন্দাস তৃণমূল ব্লক সভাপতি রবিউল হোসেন বলেন, ‘‘সকলের জন্য আমাদের দরজা খোলা রয়েছে৷ আমাদের নেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের নির্দেশ মেনে দলে থাকতে চাইলে কোনও অসুবিধা নেই৷’’ তবে দলের সঙ্গে বেইমানি করলে তাঁকে ঘাড় ধাক্কা দিয়ে বের করে দেওয়া হবে, হুঁশিয়ারি দেন তিনি৷ এদিকে অঞ্চল সভাপতির তৃণমূলে যোগদান প্রসঙ্গে বিজেপি নেতৃত্বকে জিজ্ঞাসা করা হলে তারাও ‘‘বিষয়টি জানা নেই৷ খোঁজ নিয়ে দেখতে হবে৷’’

Advertisement ---
---
-----