ঢাকা:  জটিল হয়ে গেল বাংলাদেশের জাতীয় নির্বাচন পরিস্থিতি৷ অন্যতম বিরোধী দল বিএনপি শনিবার তাদের ৪০ তম প্রতিষ্ঠা দিবসের জমায়েত থেকে স্পষ্ট জানিয়ে দিল, দলনেত্রী বন্দি থাকলে নির্বাচনে অংশ নেওয়া হবে না৷ জিয়া চ্যারিটেবল সোসাইটির আর্থিক দুর্নীতির মামলায় দোষী সাব্যস্ত হয়ে জেলে রয়েছেন প্রাক্তন প্রধানমন্ত্রী তথা বিএনপি নেত্রী৷

শনিবার দুপুরে ঢাকার নয়া পল্টনে বিএনপির প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে বিশাল জমাত হয়েছে৷ সেই জমায়েত থেকেই বিএনপি নেতৃত্ব দাবি করেছেন, নিরপেক্ষ নির্বাচনে এত ভয় কেন সরকারের ? ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগের নেত্রী তথা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উদ্দেশে প্রশ্ন ছুঁড়ে বলা হয়েছে, খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে দেশে কোনও নির্বাচন হবে না। তাকে বাইরে রেখে কোনও নির্বাচন গ্রহণযোগ্যও হবে না। পাশাপাশি, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের নির্ঘণ্ট ঘোষণার আগে আওয়ামী লীগ সরকারের পদত্যাগেরও দাবি তোলা হয়েছে৷

Advertisement

এদিকে নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার নিয়েও আগেই প্রশ্ন তুলেছেন বিএনপি নেতৃত্ব৷ তাঁদের দাবি, ইভিএম ভোটের মাধ্যমের ব্যাপক আর্থিক দুর্নীতি করা হচ্ছে৷ সেই সঙ্গে ডিজিটাল জালিয়াতি করেই ক্ষমতায় আসার পরিকল্পনা নিয়েছে আওয়ামী লীগ৷

বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেন, আমাদের আজ বুকে সাহস নিয়ে, বুকে বল নিয়ে ঘুরে দাঁড়াতে হবে। খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে। গণতন্ত্রকে ফিরিয়ে আনতে হবে। তাই আমাদের ঘুরে দাঁড়াতে হবে। আজকের জনসমুদ্র প্রমাণ করেছে আজ বাংলাদেশ আবার ঘুরে দাঁড়িয়েছে। বুকের রক্ত দিতে হবে, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করতে হবে, দেশকে মুক্ত করতে হবে। যারা দেশের জন্য, গণতন্ত্রের জন্য জীবন দিয়েছে, তাদের রক্ত ছুঁয়ে শপথ নিতে হবে আমরা দেশের গণতন্ত্রকে মুক্ত করব, খালেদা জিয়াকে মুক্ত করব।

----
--