নদী থেকে উদ্ধার গোচারকের দেহ

স্টাফ রিপোর্টার, বাঁকুড়া: তিন দিন নিখোঁজ থাকার পর অবশেষে উদ্ধার হল এক গোচারকের দেহ৷ ঘটনাটি ঘটেছে বাঁকুড়ার সোনামুখীর দামোদর নদীর ভাগলুই ফেরিঘাটে৷ মৃত ওই গোচারকের নাম গোবর্দ্ধন বাউরী (৫৫)। বাড়ি সোনামুখীর কৃষ্ণনগর গ্রামে।

পরিবার সূত্রে জানা গিয়েছে, অন্যান্য দিনের মত গত বুধবারও গোবর্দ্ধনবাবু দামোদর নদী পেরিয়ে গোরু চরাতে গিয়েছিলেন। কিন্তু কোন কারণে হয়ত নদীর জলের স্রোতে গোরুর লেজ ছেড়ে দিয়েছিলেন তিনি৷ ফলে তিনি জলের স্রোতে তলিয়ে গিয়েছেন বলে মনে করছে গোবর্দ্ধনবাবুর পরিবার৷

ঘটনার দিন অনেকটা সময় পেরিয়ে গেলেও তিনি বাড়ি ফেরেন নি৷ পরে রাত পর্যন্ত তিনি বাড়ি না ফেরায় পরিবারের লোকজন খোঁজাখুঁজি শুরু করেন। খবর দেওয়া হয় থানায়। নদীতে কোন কারণে তলিয়ে গিয়েছেন ধরে নিয়েছিল পুলিশ৷ তাই তাঁরা উদ্যোগ নিয়ে দামোদর নদীতে তল্লাশি শুরু করে। প্রশাসনের তরফে ডুবুরি নামিয়েও ওই ব্যক্তির খোঁজ মেলেনি।

আরও পড়ুন: আইআরসিটিসি দুর্নীতি: জামিন পেলেন রাবড়ি, তেজস্বী2018/08/31 বাবা মার অশান্তির জের, মায়ের হাতে খুন এক বছরেরে কন্যা সন্তান

পরে বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ভাগলুই ফেরিঘাটের এক নৌকা চালকের নজরে বিষয়টি আসে। তার কাছ থেকেই পরিবারের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে এসে গোবর্দ্ধন বাউরীর মৃতদেহ সনাক্ত করেন। পরে সোনামুখী থানার পুলিশ খবর পেয়ে দামোদর নদীর ভাগলুই ঘাটে আসে৷

মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য বিষ্ণুপুর জেলা হাসপাতালে পাঠায় পুলিশ৷ তিনি জলের স্রোতে ভেসে গিয়েছিলেন নাকি তাঁকে কেউ খুন করে পরে নদীতে ফেলে গিয়েছিল তা তদন্ত করে দেখছে পুলিশ৷ মৃতদেহ উদ্ধারকারী মাঝি মদন বাগদী বলেন, ‘‘বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় নদীতে পচা গন্ধ পাই। শুক্রবার ওই জায়গায় গিয়ে নৌকায় করে মৃতদেহ নদীর পারে নিয়ে আসি।’’

Advertisement
---
-----