দিল্লি থেকে ওমান মাত্র ৬ ঘন্টায়! শব্দের থেকেও জোরে ছুটবে এই SuperJet

দিল্লি থেকে ওমান পৌঁছতে লাগবে মাত্র ৬ ঘন্টা। Boom XB-1 সুপারজেটের মাধ্যমে এই অসম্ভবই সম্ভবে পরিণত হতে পারে। খুব শীঘ্রই এটি বিশ্বের দ্রুততম সুপারজেট বলে গণ্য হবে। এছাড়া এই সুপারজেট সর্বোচ্চ উচ্চতায় সাকাশে উড়বে।
বর্তমানে যেই সুপারজেটটির গতি সবথেকে বেশি, সেটির লস এঞ্জেলস থেকে সিডনি পৌঁছতে সময় লাগে ১৫ ঘন্টা। কিন্তু Boom XB-1 সুপারজেট মাত্র ৬ ঘন্টায় লস এঞ্জেলস থেকে সিডনিতে পৌঁছনো যাবে। একই সময় লাগবে দিল্লি থেকে ওমানের সালাল্লাহ পৌঁছতে। ২০২০ সালের পর থেকে বাণিজ্যিক ভাবে এই সুপারজেট চলতে শুরু করবে বলে আশা করছে বুম সুপারসোনিক।

Boom XB-1 সুপারজেটটি ভূপৃষ্ঠ থেকে ৬০ হাজার ফুট উপরে উড়বে। তাই পৃথিবীর যেকোন জায়গায় অত্যন্ত কম সময় পৌঁছনো সম্ভব হবে এই সুপারসোনিক জেটের মাধ্যমে। এই জেটটি শব্দের চেয়েও দ্রুত গতিতে চলবে বলে জানা গিয়েছে। ঘন্টায় ২৩৩৫ কিলোমিটার বেগে চলবে Boom XB-1 সুপারজেটে, যা শব্দের গতিবেগের প্রায় দ্বিগুণ।

বুম সুপারসোনিক দ্রুততম জেট তৈরির জন্য মোট খরচ হবে ৩২৯ মিলিয়ন ডলার। এখনও পর্যন্ত ফান্ডে ৪৩ মিলিয়ন ডলার আছে। বহু বিনিয়োগকারীরাও এই বুম সুপারসোনিকের এই প্রজেক্টটি সফল করার জন্য উদ্যোগ নিয়েছেন। এছাড়া এই সুপারজেটের টিকিটি থেকেও বাকি টাকা উঠবে বলে মনে করছে বুম সুপারসোনিক কর্তৃপক্ষ। টিকিটের দাম ৬,৬০০ ডলার এবং একটি সুপারজেটে থাকবে ৪৫ টি করে আসন। সারা বিশ্বে ৫০০ টি রুটে এই সুপারজেট চলবে।

- Advertisement -

বুম সুপারসোনিকের দ্রুততম জেট তৈরির প্রজেক্ট সফল হলে বিশ্বের বিজনেসম্যানদের লাভ হবে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা। টিকিটের দাম বেশি হলেও, সময় বাঁচানো যাবে অনেক। এমনকি একই দিনে বিশ্বের এক জায়গা থেকে আর এক জায়গায় যাওয়া যাবে এই Boom XB-1 সুপারজেটের মাধ্যমে।

Advertisement ---
---
-----