বিবাহ বাসরে সাজে-আহ্লাদে

মেয়ের বিয়ে নিয়ে বাড়িতে সকলেই যখন নানা চিন্তায় অস্থির, মেয়ের তখন একমাত্র চিন্তা, বিয়ের দিন তাঁকে কেমন দেখাবে সেই নিয়ে৷ ইদানিং বিয়ের সাজ নিয়েও চলছে যথেষ্ট পরীক্ষা-নিরীক্ষা। এখন বেশিরভাগই প্রফেশনাল মেকআপ আর্টিস্ট ছাড়া মেকআপ করতেই চাননা অনেকে৷ এদিকে তাই মেকআপ আর্টিস্টরা নিত্যনতুন ব্রাইডাল আউটলুক নিয়ে চমক দেখাচ্ছেন। তবে খেয়াল রাখতে হবে কনের চোখেমুখে যেন চিন্তার ছাপ না পড়ে৷ তাহলে কিন্তু মেকআপ ফুটবেনা একেবারেই৷ আবার ইদানিং সব আর্টিস্টরাই জানিয়ে দেন খুব বেশি তেল হলুদ না মাখতে৷ এরফলে মেকআপ ঠিকমতো বসে না৷ তাদের কথা অবশ্যই মাথায় রাখুন৷

চুলের সাজ
কনের চুলের সাজ এখন শুধু বড়সড় একটা খোঁপা নয়। খোলা চুলেও কনেকে অনবদ্য করে তুলতেএকপাশে কার্ল করে খোলা, সেই সঙ্গে ঘোমটায় ঢাকা খোঁপা, কখনও সামনের দিকে চুল দিয়েই বিভিন্ন ফুল করে অন্যরকম লুক দেওয়া হচ্ছে কনেকে। চুলের সাজে ফুলের ব্যবহার চিরন্তন। সেই সঙ্গে পার্ল, স্টোন, মেটালিক হেয়ার ক্রাফটও বেশ মানিয়ে যায় কনের চুলের সাজে। তবে চুল বাঁধার সময় অবশ্যই মুখের কাট মাথায় রেখে চুল বাঁধবেন, নচেৎ বিষয়টি বেমানান লাগবে৷

2

- Advertisement -

মেকআপ
কনের বিয়ের মেকআপ নিয়ে বলা শুরু করলে শেষ হবে না৷ সামনেই বিয়ের মরশুম। ভারি মেকআপে প্যানস্টিক, প্যানকেকের ব্যবহার থাকবেই। খুব গাঢ় ব্রাইডাল মেকআপে নয়, হাইলাইটারের ব্যবহার করলে ভালো। ব্রাইডাল মেকআপের ধরন নির্ভর করবে কনের চাহিদার ওপর।

ঠোঁট
বিয়ের কনে টুকটুকে লাল ঠোঁটে হেসে আর নাকের নথ দুলিয়ে কথা বলবে এমন দৃশ্য চিরন্তন। তবে এখন কনে ঠিক কোন রঙে ঠোঁট রাঙাবে সেটা অনেকটাই নির্ভর করে কনের পোশাক, আর চোখের সাজের ওপর। রঙিন পোশাকের সঙ্গে ন্যুড ম্যাট, পিচ, বাদামিসহ নিউট্রাল রঙের লিপস্টিক মানায় বেশ। এ ক্ষেত্রে চোখের সাজ হবে ভারি। বিয়ের পোশাক যদি লাল ছাড়া অন্য কোনো রঙের হয় তাহলে ঠোঁটে লাল, গোলাপি, খয়েরি রং ভালো লাগবে। ঠোঁটের রং গাঢ় করলে চোখ সাজাতে হবে হালকা সাজে।

চোখ
বিয়ের মেকওভারে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কনের চোখের সাজ। এই দিনে কনের মনের সব কথা যেন চোখই বলে। তবে চোখের গঠন অনুযায়ী মেক আপ করতে হবে৷ চোখের সাজে লেন্সের ব্যবহার রাখতে পারেন। বার্বি, ব্লু, অ্যাকুয়া, গ্রীন, পার্পল, হানিসহ যে কোনও উজ্জ্বল লেন্সের ব্যবহার বিয়ের সাজে খুব মানিয়ে যায়। ভারি চোখের সাজ বেশ জনপ্রিয় বিয়ের মেকওভারে। স্মোকি আই ভালো লাগে এক্ষেত্রে৷ তবে কালোর পাশাপাশি কপার, সিলভার, গোল্ডেন, ব্রাউনসহ সব রঙেরই ব্যবহার হচ্ছে। গ্লিটারি আজকাল৷ আইশ্যাডো, ফলস্ আইল্যাশে গ্লিটার, স্টোনের ব্যবহার বিয়ের সাজে খুব মানিয়ে যায়। ঘন আইল্যাশ শুধু চোখের ওপরের পাতায় না, ওয়াটার লাইনেও ব্যবহার করা হচ্ছে। টানা আইলাইনারের রেখা আর ঘন মাশকারার পরত চোখের সাজে আনে মাদকতা।

bor

বরের সাজ
বিয়ের আসরে কনের পাশে বসার জন্য বরকেও তৈরি হয়ে আসতে হবে বৈকি! বিয়ের দিনে যেন বরকে দেখেও চোখ জুড়িয়ে যায় সকলের। হেয়ারস্টাইল, দাড়ির কাটে বাহার আর ঝকঝকে পোশাকের সঙ্গে সঙ্গে মুখে জৌলুশ আনারও তো একটা ব্যাপার থাকে৷ শহরের প্রসিদ্ধ মেনস পার্লারগুলোতে আছে স্পেশাল গ্রুম কেয়ার। বরের পছন্দের লুক আনতে আগেই কথা বলে নিন সেলুনে। মানানসই হেয়ার কাট, শেভিং আগেই করিয়ে নিন। ফেসিয়াল, পেডিকিওর-ম্যানিকিওরের ব্যাপারগুলো দুই-তিন দিন আগেই সেরে ফেলা ভালো। বিয়ের দিনে বরের মেকআপ মানেই হালকা বেজ়, পাউডার পাফ আর ঠোঁটে কালারড বাম। অনেক বরকে বিয়ের দিনে চোখে লেন্স পরতেও দেখা যায়। ধূসর, বাদামি রঙের লেন্স বেশ মানিয়ে যায় বরের সঙ্গে। চুলের সাজে জেল, হেয়ার স্প্রে, করতে পারেন। বরের মেকআপের মূল কথা হচ্ছে পরিচ্ছন্নতা! বিয়ের দিনের রাজপুত্রকে লাগুক রাজকীয়!
তবে সাজার সময় অবশ্যই বেনারসী লাহেঙ্গা আর বরের ক্ষেত্রে পাঞ্জাবী শেরওয়ানির কথায় মাথায় রেখে সাজুন৷ আর বিয়ের দিনের আপনার মুখ খানি যেন আমন্ত্রিতদের মনে থাকে বেশ অনেকদিন৷

Advertisement
---