স্বামীর হাতে প্রাক্তনের নামে ট্যাটু, বাসস্ট্যান্ডে দুমাদুম কিল, চড় স্ত্রীর

কোয়েম্বাটুর: বিয়ের মোটে পাঁচদিন কেটেছে৷ নতুন বউকে নিয়ে বিকেলে ঘুরতে বেড়িয়েছেন স্বামী৷ মিষ্টি মিষ্টি প্রেমের খোসগল্প চলছিল৷ আচমকাই রণংদেহী মূর্তি নিল নববধূ৷ একগাদা লোকজনের সামনে ঠেঙাতে শুরু করল স্বামীকে৷ প্রথমটায় সকলে থতমত খেয়ে গিয়েছিল৷ ধীরে ধীরে স্পষ্ট হল স্বামীকে মারধরের কারণ৷

বিয়ের আগে অন্য এক প্রেমিকা ছিল স্বামীর৷ ভালোবেসে সেই মেয়ের নামে হাতে ট্যাটুও করেছিলেন৷ প্রেমিকা গিয়েছে৷ কিন্তু ছাপ রেখে গিয়েছে শরীরে৷ তা হঠাৎই নজরে আসে নতুন বউয়ের৷ স্বামীর শরীরে অন্য মেয়ের নামের ট্যাটু! সহ্য করতে না পেরে বাসস্ট্যান্ডেই দুমাদুম পিটিয়ে দিল স্বামীকে৷ তামিলনাড়ুর কিনাথুকাডাবুর ঘটনা৷

আরও পড়ুন: হুমায়ুনকে পাশে বসিয়ে অধীরকে বিজেপিতে আহ্বান জয়ের

- Advertisement DFP -

সম্প্রতি কিনাথুকাডাবুর সাঁইবাবা কলোনির একটি বাসস্ট্যান্ডে স্বামীর সঙ্গে দাঁড়িয়েছিলেন বছর বাইশের ওই নববধূ৷ হঠাৎই তাঁর নজরে আসে স্বামীর হাতের ট্যাটুটি৷ যেখানে প্রাক্তন প্রেমিকার নাম খোদাই করা রয়েছে৷ স্বামীর হাতখানা দেখে তেলেবেগুনে জ্বলে ওঠেন তিনি৷ প্রেম, ভালোবাসা মুহূর্তে বেপাত্তা৷ এরপরই স্বামীর উপর চড়াও হন৷ প্রথমে চেঁচামেচি৷ তারপর শুরু হয় মারধর৷

পরিস্থিতি বেগতিক দেখে এগিয়ে আসেন কয়েকজন৷ তাঁরাই দু’জনকে স্থানীয় সাঁইবাবা কলোনি পুলিশ স্টেশনে নিয়ে যায়৷ বছর বাইশের ওই যুবতী ঘটনার দিন পাঁচেক আগেই ২০ বছরের ওই যুবককে বিয়ে করেন৷ পুলিশ জানিয়েছে, এটি ওই যুবতীর দ্বিতীয় বিবাহ৷

আরও পড়ুন: ছোট্ট দুর্গাদের অসহায়তাই থিম এই পুজো মণ্ডপের

প্রথম স্বামীর সঙ্গে বিচ্ছেদের পর এক সন্তানকে নিয়ে মা-বাবার কাছে থাকতেন ওই যুবতী৷ এরপরই বয়সে বছর দু’য়েকের ছোট ওই যুবকের সঙ্গে প্রেম ও বিয়ে৷ বিয়ের পরপরই এমন ঘটনা৷ ওই যুবতীর মনে হয় স্বামী তাঁকে ঠকিয়েছে৷ এরপরই শুরু হয় মারধর৷

Advertisement
----
-----