পুরো সিনেমা! বরের সমানেই বয়ফ্রেন্ডের গলায় মালা দিল কনে

লখনউ: এ যেন কোনও রোমান্টিক মুভির প্লট৷ অতিথি অভ্যাগততে ভরপুর বিয়ের অনুষ্ঠান৷ পুরোহিত মন্ত্র পড়ছেন৷ বর বধূ দুজনের হাতেই মালা৷ একে অপরকে পরাবেন৷ কিন্তু তা না করে পাশে দাঁড়িয়ে থাকা প্রেমিকের গলায় মালা পরিয়ে দিলেন কণে৷

উত্তরপ্রদেশের বিজনোর জেলার নগিনা থানার অন্তর্গত এক গ্রামে বিয়ে করতে পোঁছয় হবু বর৷ ব্যান্ড বাজা বারাত বিয়ের মণ্ডপে পৌঁছতেই মেয়ের বাড়ি থেকে তৎপরতা শুরু হয়ে যায়৷ রীতি মেনে বিয়ের মণ্ডপে বিয়েও শুরু হয়৷ যেই মালা পরানোর সময় হয় মঞ্চে মালা হাতে হিরোর কায়দায় হাজির হয় প্রেমিক৷ এসেই হাতের মালা কণের গলায় পরিয়ে দেয় ওই যুবক৷ এবার কণের পালা৷ সেও সকলের সামনেই হবু বরকে মালা না পরিয়ে দিয়ে ওই যুবকের গলায় মালা পরিয়ে দেয়৷ এমন ঘটনায় চমকে যান উপস্থিত সকলেই৷ এমনকি হবু বরও৷

জানা গিয়েছে কণে নগীনার একটি ডিগ্রি কলেজে পড়তেন৷ সেই কলেজেই পড়ত ওই যুবক৷ দুজনের মধ্যে প্রণয়ের সম্পর্কও তৈরি হয়৷ কিন্তু ছেলেটি ও মেয়েটি একই সম্প্রদায়ের নয়৷ দুজনের মধ্যে সম্পর্ক রয়েছে প্রায় চার বছর ধরে৷ এদিকে ওই যুবতির পরিবার তার বিয়ে ঠিক করে দেয় বিজনোরের এক গ্রামে৷ বিয়ের দিন লগ্ন অনুযায়ী বর আসে৷ সঙ্গে বরযাত্রীও৷ ব্যান্ড বাজিয়ে বরপক্ষ নাচতে নাচতে কণের বাড়ি পৌঁছয়৷ কিন্তু সবকিছু গণ্ডগোল হয়ে যায় কণের প্রেমিকের গলায় মালা পরিয়ে দেওয়ার পরেই৷

- Advertisement -

এই সব দেখে হবু বর অবাক হয়ে যায়৷ ঘটনার আকস্মিকতা সামলে উঠতে অবশ্য দেরি হয়নি৷ এরপরই তৈরি হয় উত্তেজনা৷ শুরু হয়ে যায় মারামারি৷ বিয়ের অনুষ্ঠান রণক্ষেত্রের চেহারা নেয়৷ এরমধ্যে থেকেই কেউ একজন পুলিশকে খবর দেয়৷ খবর পেয়েই ঘটনাস্থলে পৌঁছয় পুলিশ৷ কোনও প্রকারে গণ্ডগোল থামে৷ এরপর কণে ছাড়াই বরপক্ষ ফিরে যায়৷

এখানেই অবশ্য ঘটনার শেষ নয়৷ হঠাৎ কণের গলায় মালা পরিয়ে দেওয়ার অপরাধে বিয়ের অনুষ্ঠানে উপস্থিত লোকজন কণের প্রেমিককে মারধোর শুরু করে৷ পুলিশই ওই যুবককে উত্তেজিত লোকজনের হাত থেকে রক্ষা করে৷ এমন ঘটনায় ক্ষুব্ধ হয়ে হবু বর মণ্ডপ ছেড়ে নেমে পড়ে৷ বরপক্ষও বলে এই মেয়ের সঙ্গে তাঁরা তাঁদের পাত্রের বিয়ে দেবেন না৷ হবু বর ও বরযাত্রী কণে ছাড়াই ফিরে যায়৷

Advertisement ---
---
-----