‘শিশুদের নগ্ন করে নাচ করতে বাধ্য করত সন্ন্যাসী!’

ফাইল ছবি

নয়াদিল্লি : সন্ন্যাসী ভান্তে সংঘপ্রিয়া সুজয়কে ১৫ শিশুকে যৌন নির্যাতন করার অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়৷ যৌন নির্যাতনে অভিযুক্ত সেই বৌদ্ধ সন্ন্যাসী সম্পর্কে নয়া তথ্য পেল পুলিশ৷ পুলিশ জানতে পেরেছে যৌন নির্যাতনের পাশাপাশি, ওই সন্ন্যাসী নাকি শিশুদের নগ্ন হয়ে নাচ করতে বাধ্য করত৷ কোনও শিশু রাজি না হলে, তার ওপর চলত অকথ্য অত্যাচার৷ একজন উচ্চপদস্থ পুলিশ আধিকারিক সংবাদ সংস্থা এএফপিকে জানিয়েছেন এই তথ্য বলে খবর৷

ছয় থেকে বারো বছরের শিশুদের বেছে নিত এই সন্ন্যাসী৷ মূলত এদের নিয়ে আসা হয়েছিল অসমের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে৷ পরিবারের কাছে শিশুরা তাদের ওপর অত্যাচার নিয়ে অভিযোগও করে পরিবারের কাছে৷

গয়ার পুলিশ সুপার অনিল কুমার জানান, অভিযুক্ত মাসতিপুর গ্রামে একটি স্কুল-মেডিটেসন সেন্টার চালাত৷ সেই স্কুলে পড়তে আসা ১৫ জন নাবালককে যৌন নির্যাতন করা হয় বলে অভিযোগ৷ পুলিশের কাছে পড়ুয়ারা জানায়, স্কুলের মধ্যে ওই সন্ন্যাসী তাদের সঙ্গে অভব্য ব্যবহার, মারধর এমনকী যৌন হেনস্থা করত৷ ডেপুটি পুলিশ সুপার রাজকুমার শাহ সন্ন্যাসীকে জেরা করেন৷ তারপরেই বেরিয়ে আসে একের পর এক তথ্য৷

- Advertisement -

বৃহস্পতিবার নির্যাতিত নাবালকদের আদালতে পেশ করা হয়৷ সেখানে তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করা হয়৷ এরপর হয় মেডিক্যাল পরীক্ষা৷ এ দিকে একের পর এক শিশু নির্যাতনের ঘটনায় রাজ্য সরকারের সমালোচনায় সরব হয়েছে বিরোধীরা৷ মুখ্যমন্ত্রী নীতীশ কুমারের বিরুদ্ধে সবচেয়ে বেশি সুর চড়িয়েছেন আরজেডি নেতা তেজস্বী যাদব৷

কয়েক মাস আগে বিহারের মুজফফরপুরের একটি হোমের ৩০র বেশি নাবালিকার উপর যৌন হেনস্থার ঘটনা শোরগোল ফেলে দেয়৷ ঘটনায় জড়িত ১১ জনকে গ্রেফতার করা হয়৷ মেডিক্যাল পরীক্ষায় ২৯জন নাবালিকাকে ধর্ষণের ঘটনা প্রমাণিত হয়েছে৷

Advertisement ---
-----