কাজে ব্যস্ত, স্কুল চলছে ‘ভাড়াটে শিক্ষক’ দিয়ে!

স্টাফ রিপোর্টার, হাওড়া: স্কুলে আসল শিক্ষকের পাত্তা নেই৷ ক্লাস নিচ্ছেন ভাড়াটে শিক্ষক৷ স্কুল পরিদর্শনে গিয়ে হাতেনাতে আউটসোর্সিং ধরে ফেললেন স্কুল পরিদর্শক৷ মধ্য হাওড়ার রামকৃষ্ণপুর শ্রী জ্ঞানমন্দির জুনিয়ার হাইস্কুলের ঘটনা৷ এই ঘটনায় অভিযুক্ত তিন শিক্ষককে শোকজ করে স্কুলের গেটে তালা ঝুলিয়ে দিয়েছেন স্কুল পরিদর্শক৷ এই ঘটনায় এলাকায় ছড়িয়েছে ব্যপক চাঞ্চল্য৷

জানা গিয়েছে, স্কুলে মোট চারটি ক্লাস ও শিক্ষকের সংখ্যা তিন৷ একজনের ওষুধের দোকান, অন্যজন গম ভাঙাতে ব্যস্ত৷ তৃতীয়জনও ব্যক্তিগত কাজে ব্যস্ত৷ সেকারণেই স্কুলে ভাড়াটে শিক্ষকের আমদানি৷ ওই স্কুলে পড়ানো হয় ক্লাস ফাইভ থেকে ক্লাস এইট পর্যন্ত৷ খাতায় কলমে মোট পড়ুয়ার সংখ্যা ১২০৷ দীর্ঘদিন ধরেই অভিভাবকদের অভিযোগ, শিক্ষকদের কেউই স্কুলে আসেন না৷ জানা গিয়েছে৷ তারা তিনজনেই ভাড়াটে শিক্ষক নিয়োগ করেছেন৷ মাসের মাইনে থেকে এদের দু থেকে আড়াই হাজার টাকা তুলে দেন তাদের হাতে৷
অভিভাবকদের অভিযোগের ভিত্তিতে বুধবার স্কুল পরিদর্শক স্কুলে আসেন৷ তিনিই এদিন ভাড়াটে শিক্ষকদের বিষয়টি হাতেনাতে ধরে ফেলেন৷ শোকজ করা হয়েছে তিন শিক্ষককেই৷ যদিও শিক্ষকদের অভিযোগ, বহুবার ওপর মহলে জানিয়েও শিক্ষক মেলেনি, সেকারণেই বাধ্য হয়ে ভাড়াটে শিক্ষকের ব্যবস্থা৷

এক্ষেত্রে প্রশ্ন উঠছে, স্কুলে না এসে এরা তিনজনেই ব্যক্তিগত কাজে ব্যস্থ৷ তাহলে স্থায়ী শিক্ষক হিসেবে কিভাবে এরা মৈসিক বেতন হাত পেতে নিচ্ছেন৷ এছাড়াও স্কুল পরিদর্শের নজর এড়িয়ে দীর্ঘদিন ধরে স্কুলে ভাড়াটে শিক্ষকের আগনণ হলই বা কিভাবেও তা নিয়েই শুরু হয়েছে বিস্তর জলঘোলা৷ এদিন স্কুলের গেটে তালা ঝুলিয়ে স্কুল পরিদর্শক জানিয়েছেন, তিনি ওপরমহলে সমস্ত ঘটনার কথা জানিয়েছেন৷ তবে এবার, ওই স্কুলের পড়ুয়াদের ভবিষ্যত একপ্রকার আঁধারে তা বলাই যেতে পারে৷

Advertisement
---