সিএবি’র বার্ষিক অনুষ্ঠানে গরহাজির ক্রিকেটাররা

ছবি-মিতুল দাস

কলকাতা: সিএবি-র বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে ক্রিকেটারদের গরহাজির নিয়ে দেখা গেল বিতর্ক৷ শুক্রবার নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে পুরস্কার নিতে দেখা গেল না সিএবি-র বর্ষসেরা ক্রিকেটার অভিমন্যু ঈশ্বরণ এবং বর্ষসেরা বোলার অশোক দিন্দাকে৷ ঈশ্বরণ ভারত-এ দলের সঙ্গে থাকায় তাঁর আসতে না-পারাটা সঙ্গত৷ কিন্তু তাঁর পরিবর্তে কে পুরস্কার নিল তাও ঠিক করে বলা হল না৷ পাশাপাশি দিন্দার আসতে না-পারা নিয়েও অজ্ঞাত সিএবি৷

যা নিয়ে সিএবি-র শাসক গোষ্ঠির বিরুদ্ধে ক্ষোভ উগড়ে দিলেন প্রাক্তন সিএবি কোষাধ্যক্ষ বিশ্বরূপ দে৷ অনুষ্ঠানে দর্শকাসনের শেষ সারিতে বসে থাকা বিশ্বরূপবাবু বলেন, ‘এত অগোছালো সিএবি-র বার্ষিক অনুষ্ঠান আগে কোনও দিন হয়েছে বলে মনে পড়ছে না৷ প্রথম সারির কর্তা অনুষ্ঠানের কিছুদিন আগে পর্যন্ত বিদেশে থাকলে এরকম অনুষ্ঠানই প্রত্যাশিত৷’

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতীতি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজ্যপাল কেশরীনাথ ত্রিপাঠি৷ তিনিই বেশিরভাগ ক্রিকেটারের হাতে পুরস্কার তুলে দেন৷ সারাজীবনের স্বীকৃতি হিসেবে এবার কার্তিক বোস লাইফটাইম অ্যাচিভমেন্ট পুরস্কার পেলেন প্রাক্তন ফাস্ট বোলার বরুণ বর্মন৷ সাত ও আটের দশকে বাংলার ক্রিকেটে দাপিয়ে বেড়ানো এই ক্রিকেটারের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হলেও তাঁকে কিছু বলতে দেওয়ার কার্পণ্য দেখাননি সিএবি কর্তারা৷ এ নিয়ে কিছু না-বলেও তাঁকে পরে ডাকা হবে বলে শুনেই মঞ্চের দিকে এগিয়ে যান বরুণবাবু৷ কিন্তু শেষ পর্যন্ত মাইক্রোফোন হাতে অভিব্যক্তি প্রকাশের সুযোগ মেলেনি প্রাক্তন এই পেসারের৷

বার্ষিক পুরস্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে সিএবি সাধারণত দেশের কোনও বড় ক্রিকেটারের হাত দিয়ে উদীয়মান ক্রিকেটারদের পুরস্কার দিয়ে থাকে৷ কিন্তু ইদাংনি সেটা কেন হচ্ছে না তা জানতে চেয়ে বিশ্বরূপ দে বলেন, ‘আগে তো দেশের কোনও বড় ক্রিকেটারকে এনে তাঁর হাত দিতে উঠতি ক্রিকেটাদের হাতে পুরস্কার তুলে দেওয়া হত৷ এতে ছোট ক্রিকেটাররা অনুপ্রেরণা পেত৷ কিন্তু এখনও তো সিএবি ছোট-মাঝারি মাপের কর্তারাও ক্রিকেটারদের হাতে পুরস্কার তুলে দিচ্ছে৷ এটা পাইয়ে দেওয়ার রাজনীতি ছাড়া আর কী?’

সিএবি-র বর্ষসেরা জেন্টেলম্যান ক্রিকেটারের পুরস্কার পেলেন অভিষেক রমন৷ অনূর্ধ্ব-২৩ বর্ষসেরা ক্রিকেটার সৌরভ সিং এবং অনূর্ধ্ব-১৯ বর্ষসেরা ক্রিকেটারের পুরস্কার পেলেন ঈশান পোড়েল৷ চলতি বছর ভারতীয় অনূর্ধ্ব-১৯ বিশ্বকাপ জয়ী দলের সদস্য হওয়ার জন্য ঈশানকে বিশেষ সংবর্ধনা দিল সিএবি৷ আর মহিলাদের বর্ষসেরা ক্রিকেটার হলেন দীপ্তি শর্মা৷ অনূর্ধ্ব-২৩ বর্ষসেরা মহিলা ক্রিকেটারের পুরস্কার পেলেন তনুশ্রী সরকার৷ অনূর্ধ্ব-১৯ বর্ষসেরা মহিলা ক্রিকেটার হলেন রিচা ঘোষ৷

Advertisement
----
-----