১২ দিনের ট্রেন বাতিল, সংকটে পর্যটকরা

ভুবনেশ্বর:  ১২ দিন রেলের কাজের জন্য বাতিল হল একাধিক ট্রেন৷ যার জেরে সমস্যায় বহু পর্যটক৷ আর এই ঘোষণার পর পুরী যাত্রার পরিকল্পনা ভেস্তে গেল বহু পর্যটকের৷ যাওয়া-আসার কনফার্ম টিকিট দেওয়ার পরেও কেন এমন সিদ্ধান্ত তা নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন বহু যাত্রী৷ যদিও রেলের তরফে জানানো হয়েছে, যাত্রীদের সুবিধার্থে কিছু ট্রেন ভুবনেশ্বর ও কিছু ট্রেন নিকটবর্তী স্টেশন পর্যন্ত চালানো হবে৷ তবে কোনও ট্রেনই টানা বাতিল থাকছে না৷

ভারতীয় রেলের আচমকা এই এসএমএস পায় যাত্রীরা৷ রেলের পক্ষ থেকে পর্যটকদের জানানো হয়, পুরী স্টেশনে কাজ শুরু হওয়ার দরুন এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে৷ আগামী ১২ সেপ্টেম্বর থেকে ২৫ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত চলবে সংস্কারের কাজ৷ আর এই দিনগুলিতেই কাজের সুবিধার্থে কিছু ট্রেন বাতিল করা হয়৷

আরও পড়ুন: জানেন কী বলছে এই ইমোজিরা

- Advertisement -

এই প্রসঙ্গে দক্ষিণ-পূর্ব রেলের মুখ্য জনসংযোগ আধিকারিক সঞ্জয় ঘোষ জানিয়েছেন, সংস্কারের কাজ শুরুর জন্যেই এই মূলত এই তোড়জোড়। সংস্কার কাজের সঙ্গে যুক্ত দল সবুজ সঙ্কেত দিলেই সংস্কারের মূল প্রক্রিয়ায় হাত দেওয়া হয়। ১২ সেপ্টেম্বর যে কাজ শুরু করা যাবে, সেটা আগে থেকে কারোরই জানা ছিল না৷ তাই আচমকা এমন সিদ্ধান্ত৷এক্ষেত্রে কিছু যাত্রীদের ভোগান্তি হবে তা-ও জানিয়েছেন তিনি৷

ভারতীয় রেল সূত্রে খবর, এর আগে ২০১৫ সালে পুরী-খুর্দা রোড সিঙ্গল লাইনকে পরিবর্তন করে ডবল লাইন করা হয়৷ তখনও বেশ কিছু দিনের জন্য বন্ধ রাখা হয়েছিল রেললাইনটি৷ হাওড়া-চেন্নাই মেন লাইনের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ জংশন স্টেশন খুর্দা রোড। কিন্তু জংশন স্টেশন না হলেও টার্মিনাল স্টেশন হিসাবে পুরী অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ একটি স্টেশন৷ দিনে প্রায় ৫০-এর উপর ট্রেন আসা যাওয়া করে পুরী স্টেশনে৷

আরও পড়ুন: UPSC ওয়েবসাইট দখলে নিল ডোরেমন

১২ দিন লাইন বন্ধ রেখে কি কাজ করা হবে জানতে চাওয়া হলে সঞ্জয়বাবু জানান, প্ল্যাটফর্মগুলির দৈর্ঘ্য বাড়ানো হবে। আর এই দৈর্ঘ্য বাড়ানো হলে ইয়ার্ডের নকশা, সিগন্যাল-ব্যবস্থা, ওভারহেড তার সব কিছুরই পরিবর্তন করা হবে৷ এর কারণ ব্যাখ্যা করে তিনি জানান, বর্তমানে ২২ কোচের ট্রেন দাঁড়াতে এই প্ল্যাটফর্মগুলিতে অসুবিধা হয়৷ তবে এই কাজের পর ২৬ কোচের ট্রেন দাঁড়াতেও কোনও অসুবিধা হবে না৷

অন্যদিকে ক্ষুব্ধ পর্যটকদের দাবি, এমন ঘটনা জানা থাকলে আগে কেন কনফার্ম টিকিট দেওয়া হয়েছে৷ কোনও পর্যটক কাজে যাচ্ছিলেন আবার বেশির ভাগই ঘুরতে যাচ্ছিলেন৷ যারা ঘুরতে যাচ্ছিলেন তাদের অধিকাংশরই হোটেল বুক করা হয়ে গিয়েছে৷ সেই টাকাও এখন তারা ফেরত পাবে না৷ উপরন্তু যারা এই ১২ তারিখ থেকে ২৫ তারিখের মধ্যে ফেরার টিকিট কেটেছিলেন তাঁরাও ব্যাপক সমস্যার সম্মুখীন হয়েছে৷ যাত্রীদের অনেকেই অন্য কোনও উপায় পৌঁছতে চাইছেন পুরীতে৷

Advertisement ---
-----