ক্যাশ ফর ভোটের তদন্ত সোমনাথ তুলে দিয়েছিলেন দিল্লি পুলিশকে

নয়াদিল্লি: মূল্যবোধ, নিরপেক্ষতা, আদর্শবোধকে পুঁজি করেই তাঁর সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় হয়ে ওঠা৷ দলের সঙ্গে সংঘাত হোক বা লোকসভায় ক্যাশ ফর ভোট বিতর্ক৷ আইন বিরুদ্ধ কোনও কিছুই করেননি তিনি৷ তাইতো লোকসভায় ক্যাশ ফর ভোট বিতর্কের তদন্তভার স্পীকার সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় তুলে দিয়েছিলেন দিল্লি পুলিশের হাতেই৷ একই সঙ্গে গঠন করা হয় সংসদীয় কমিটিও৷

২০০৮ সাল৷ ভারতের সংসদীয় গণতন্ত্রের একটা অধ্যায় বলা যায়৷ আমেরিকার সঙ্গে নিউক্লিয়ার চুক্তি নিয়ে প্রথম ইউপিএ সরকারের সঙ্গে বামেদের মতবিরোধ তুঙ্গে ওঠে৷ ২০০৮ এর ২২শে জুলাই বামেরা মনমোহন সিং সরকারের উপর থেকে সমর্থন প্রত্যাহার করে নেয়৷ ফলে লোকসভায় প্রয়োজন হয়ে পড়ে আস্থা ভোটের৷

আস্থা ভোট বিতর্ক চলার মাঝেই সরকার বিরোধী অশোক আরগাল সহ তিন বিজেপি সাংসদ ব্যাগ হাতে লোকসভায় প্রবেশ করে৷ ব্যাগ খুলে তারা বান্ডিল বান্ডিল টাকা বের করে দেখাতে থাকে৷ দাবি করেন আস্থা ভোটে অনুপস্থিত থাকার জন্য এই ব্যাগ ভরতি টাকা তাদের দিয়েছে কংগ্রেস৷

- Advertisement -

গোটা বিষয়টি অস্বীকার করা হয় কংগ্রেসের তরফে৷ বামেরা অবশ্য বিজেপির দাবি খতিয়ে দেখার দাবি তোলে৷ সোচ্চার হয় কংগ্রেসের বিরুদ্ধে৷ লোকসভার অধ্যক্ষ হিসাবে সেই সময় সোমনাথবাবুর সিদ্ধান্তই ছিল চূড়ন্ত৷ কিন্তু ঘুষ বিতর্কের তদন্তের রহস্য উন্মোচনে সোমনাথ চট্টোপাধ্যায় দিল্লি পুলিশ কমিশনারকে দায়িত্ব দেন৷ এই ঘটনায় ফের একবার প্রমাণ মেলে তাঁর নিরপেক্ষ দৃষ্টিভঙ্গির৷

Advertisement
---