ভাইরাল হওয়া এই ভিডিওটির পিছনে থাকা সত্যিটা জানেন?

সুখী জীবন কে না চায়? আর সুখী সুন্দর একটা জীবনের জন্যে প্রয়োজন অর্থের! কিন্তু সব সময়ই অর্থ এসে ধরা দেয়। না দেয়নি। আর সেজন্যে অর্থের জন্যে অনেক সময়েই অসৎ পথ ধরতে হয় কাউকে। এমনকি চুরিও পর্যন্ত করতে হয়! কিন্তু সবাই কি অর্থের লোভে চুরি করে? স্বভাবেও তো অনেক চুরি করে? যার মধ্যে বেশ শিল্পও থাকে তো ক্ষতি কি? সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়াতে এমনই একটি ভিডিও ভাইরাল হয়েছে।

ব্রাজিলের একটি ডিপার্টমেন্টাল স্টোরের ভিডিও এটি! যেখানে ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, দুই যুবতিকে আটক করেছেন দোকানের কর্মীরা। তাদের বিরুদ্ধে চুরির অভিযোগ রয়েছে। ক্রেতা সেজে দোকানে ঢুকে তার পর দোকানে রাখা জিনিসপত্র হাতাচ্ছিলেন দু’জনে। সেই সময়েই হাতেনাতে দুই তরুণীকে ধরে ফেলেন দোকানের কর্মচারীরা। কিন্তু এখানেই কাহানি মে টুইস্ট!

- Advertisement -

চুরির মধ্যেই ছিল মারাত্মক কৌশল। দেখা যাচ্ছে, ছোট স্কার্টের ভিতরে পরেছেন লম্বা অন্তর্বাস। সেই অন্তর্বাসের ভিতরে ঢুকিয়ে নিয়েছেন একটি লম্বা পিচবোর্ডের টুকরো। বাইরে থেকে বোঝার কোনও উপায় নেই, তাঁদের পোশাকের ভিতরের এই বন্দোবস্ত। দোকানে ঢোকার পরে কর্মচারী ও রক্ষীদের নজর এড়িয়ে তাঁরা তাঁদের চুরি করা জিনিস ঢুকিয়ে ফেলছেন নিজেদের অন্তর্বাসের ভিতরে। ভিতরে পিচবোর্ডের টুকরোটি কাজ করছে সুরক্ষাকবচ হিসেবে। অন্তর্বাসের ভিতর থেকে কোনও জিনিস পা বেয়ে নেমে আসার সম্ভাবনা থাকছে না।

Advertisement ---
-----