ভুল বুঝিয়ে ভক্তদের নির্বীজকরণ, রাম রহিমকে জেরা সিবিআইয়ের

নয়াদিল্লি: ভুল বুঝিয়ে ভক্তদের নির্বীজকরণ করানোর অভিযোগ উঠেছিল ডেরা সচ্চা সৌদা রাম রহিমের বিরুদ্ধে৷ দু’বছর আগে এই নিয়ে মামলা দায়ের করে সিবিআই৷ সেই মামলায় ধর্ষণে সাজাপ্রাপ্ত রাম রহিমের বয়ান রেকর্ড করল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থার আধিকারিকরা৷ বুধবার আদালতের বিশেষ অনুমতি নিয়ে রোহতকের জেলে যান আধিকারিকরা৷ জেলেই রাম রহিমের বয়ান রেকর্ড করেন তারা৷

২০১২ সালে বাবার এক অনুগামী হংশরাজ চৌহান পিটিশন দায়ের করে বলেন, ২০০০ সালে তার নির্বীজকরণ করানো হয়েছিল৷ নির্বীজকরণের পর ঈশ্বরের সাধনায় মন আসে৷ ঈশ্বর আছেন এই উপলব্ধি হয়৷ এমন বুঝিয়ে পুরুষ ভক্তদের নির্বীজকরণ করান রাম রহিম সিং৷ এদের বেশিরভাগই পাজ্ঞাব, হরিয়ানা ও রাজস্থানের বাসিন্দা৷ তাদের ডেরার সদর দফতরে নিয়ে এসে নির্বীজকরণ করানো হয়৷

পিটিশন দায়ের করে তিনি ক্ষতিপূরণের দাবি তোলেন৷ সেই ঘটনার সিবিআই তদন্তের দাবি তুলে আদালতের দ্বারস্থ হন হংসরাজ চৌহান৷ তিনি শুধু একা নন, জানা গিয়েছে এই ভাবে ৪০০ অনুগামীকে নির্বীজকরণ করানো হয়েছিল৷

পাজ্ঞাব ও হরিয়ানা হাইকোর্টের নির্দেশ পেয়ে ২০১৫ সালে সিবিআই রাম রহিম ও অন্যান্য বেশ কয়েক জনের বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করে৷ রাম রহিমের বিরুদ্ধে অপরাধমূলক ষড়যন্ত্র ছাড়াও একাধিক অভিযোগ আনা হয়।

---- -----