স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেছিলেন তদন্তের স্বার্থে যখন তখন রাজ্যে প্রবেশ করতে পারবে না কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা (সিবিআই)৷ তার জন্য আগে থেকে রাজ্য সরকারের অনুমিত নিতে হবে তদন্তকারী দলকে৷ তার ঠিক উল্টো পথে হাটলেন সিবিআই৷ সারদা কান্ডে ফের নড়েচড়ে বসল কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা৷

সারদা কান্ডে এ রাজ্যের চার তদন্তকারী অফিসারকে ফের তলব করল সিবিআই৷ যাদের কে তলব করা হয়েছে তাঁরা এরা হলেন অর্ণব ঘোষ, দিলীপ হাজরা, শঙ্কর ভট্টাচার্য, প্রভাকর নাথ৷ এর আগেও এদেরকে নোটিশ পাঠানো হয়েছিল৷ কিন্তু তারা সিবিআই দফতরে আসেননি৷ সিবিাইয়ের এবার কড়া বার্তা না এলে নেওয়া হবে আইনি ব্যবস্থা৷ তবে এই বিষয় চার তদন্তকারী অফিসারের কোনও প্রতিক্রিয়া পাওয়া যায়নি৷

সিবিআই সূত্রে খবর, বর্তমানে মালদার এসপি অর্ণব ঘোষসহ চারজন সারদা তদন্তকারী অফিসারকে নোটিস পাঠানো হয়েছে৷ সারদাকান্ড প্রকাশ্যে আসার পর রাজ্য সরকার সিট গঠন করে তদন্ত শুরু করেছিল৷ সে সময় বিধাননগর কমিশনারেটের গোয়েন্দা প্রধান ছিলেন অর্ণব ঘোষ।সারদা তদন্তকারী অফিসারদের জিজ্ঞাসাবাদ করে চিটফান্ড কেলেঙ্কারির তদন্তের বিষয়ে বিভিন্ন খুঁটিনাটি জানতে চায় সিবিআই৷ সারদাকান্ডে অনেক নথি এখনও অমিল৷ অর্ণব ঘোষসহ বাকীদের জিজ্ঞাসাবাদ করে সেসব ‘হারিয়ে যাওয়া’ নথির খোঁজ পেতে চায় সিবিআই।গুরুত্বপূর্ণ পেন ড্রাইভ, হার্ডডিস্ক এবং সুদীপ্ত সেন-দেবযানী মুখোপাধ্যায়ের সেই লাল ডায়েরি কোথায় আছে, তার এখনও হদিশ পায়নি সিবিআইয়ের তদন্তকারীরা৷

অন্ধ্রপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী চন্দ্রবাবু নাইডুর মত পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ও সম্প্রতি জানান,তদন্তের স্বার্থে যখন তখন রাজ্যে প্রবেশ করতে পারবে না কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা( সিবিআই)৷ তার জন্য আগে থেকে রাজ্য সরকারের অনুমিত নিতে হবে তদন্তকারী দলকে৷ এই বিষয়ে ১৯৮৯ সালের একটি নিয়মকে বাতিল করে রাজ্য সরকার৷ যদি আদালতে কোনও মামলা চলে বা তার নিরিখে আদালতের নির্দেশে কোনও তদন্ত করতে হয় সেক্ষেত্রে কোনও কেন্দ্রীয় তদন্তকারী সংস্থা রাজ্য সরকারের কাছে অনুমতি নেওয়ার প্রয়োজন নেই৷

----
--